এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > দিলীপ মুকুলে কি আর ভরসা নেই, কেন্দ্রীয় নেতার মন্তব্যে জল্পনা

দিলীপ মুকুলে কি আর ভরসা নেই, কেন্দ্রীয় নেতার মন্তব্যে জল্পনা

বারবার রাজ্য বিজেপির নেতৃত্বকে কড়া বার্তা দিতে দেখা যাচ্ছে বিজেপির বঙ্গ পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয় বর্গীয়কে। লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি পর্বেই যে দিলীপ ঘোষ-মুকুল রায়ের উপর ভরসা হারিয়েছেন,তা ফের একবার বুঝিয়ে দিলেন তিনি। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে অর্ধেক আসন জিতে ২০২১ এ বাংলা থেকে জোড়াফুল উৎখাতের পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন জাতীয় বিজেপি নেতা অমিত শাহ। তিনি দফায় দফায় বাংলা বুকে সভা করে সে কথা জানিয়ে গিয়েছেন সম্প্রতি। বিজেপির সংগঠনকে ঠিকমতো চালিত করতে কেন্দ্র থেকে একটি দল পাঠানোরও বার্তা দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বিজেপির বঙ্গ পর্যবেক্ষকের নজরে উঠে আসছে বিজেপির একাধিক সাংগঠনিক ত্রুটি। লোকসভা ভোটের আগে যা বাড়তি চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের।

লোকসভা ভোটের আগে বঙ্গ নেতৃত্বের নিষ্ক্রিয়তা দেখে চরম ক্ষুব্ধ বিজয়বর্গীয়। হুঁসায়ারী মন্তব্যে জানালেন,এভাবে চললে কোনোদিন তৃণমূলকে হারানো সম্ভব হবে না। নিজেদের মধ্যে লড়াই না করে লড়াইটা তৃণমূলের বিরুদ্ধে করার নির্দেশ দিলেন তিনি। প্রসঙ্গত,কৈলাশজির কাছে অভিযোগ এসেছিলো বিজেপির গোষ্ঠীকোন্দলের বিরুদ্ধে। তাছাড়া তৃণমূল কংগ্রেস একাধিকবার আক্রমণ শানাতে বক্তব্যে তুলে ধরেছে বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্বের কথা। সবদিক পর্যবেক্ষণ করে বিজয়বর্গীয় বুঝেছেন বিরোধীদের দাবীটি যুক্তিহীন নয়। তাই তিনি বারাবার বঙ্গবিজেপিকে সতর্ক করতে নিজেদের গোষ্ঠীকোন্দলে বন্ধ করার নির্দেশ দিচ্ছেন। বলছেন,এভাবে চলতে থাকলে বাংলার বুকে পদ্ম ফোটানোর স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে। বাংলা দখলই যে বিজেপির পরবর্তী টার্গেট সেটাই মনে করানোর কাজটি করছেন বঙ্গবিজেপির পর্যবেক্ষক।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

সম্প্রতি তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা শুভেন্দু অধিকারীর এলাকাতেই হামলা হয়েছে রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের উপর। সেক্ষেত্রে বিজেপি তৃণমূলকে এর জন্য দায়ী করলেও শাসক দল কিন্তু বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকেই এই হামলার কারণ হিসাবে উল্লেখ করেছে। অভিযোগে আরো জানা গিয়েছে কাঁথিতে সম্প্রতি বিজেপি নতুন এবং পুরানো দুটো গোষ্ঠীতে ভাগ হয়ে গেছে। সেখানে কার হুকুম চলবে তা নিয়ে রীতিমতো রেষারেষি চলছে বিজেপির অন্দরে। এই প্রেক্ষিতে কার্যকারিণী সভায় বঙ্গ বিজেপি পর্যবেক্ষক তথা কেন্দ্রীয় সম্পাদক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় দলীয় নেতৃত্বকে ধমকেছেন এই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জন্য। এখন বিজয়বর্গীয়-র ধমকে বঙ্গ বিজেপির এ অসুখ সারে কিনা লোকসভা ভোটের আগে সেটাই দেখার!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!