এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মুখ খুলেই দলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক শুভ্রাংশু, পাল্টা বার্তা দিলেন দিলীপ ঘোষ

মুখ খুলেই দলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক শুভ্রাংশু, পাল্টা বার্তা দিলেন দিলীপ ঘোষ

গতকাল নিজের বিধানসভা এলাকায় ডাঃ বি আর আম্বেদকরের জন্মদিন পালনের পর সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কার্যত দলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের পুত্র তথা বীজপুরের তৃণমূল বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। সবাইকে করে দিয়ে তিনি বলেছিলেন, বীজপুরের তৃণমূল কর্মীরা পাশের বাড়ির কাকাকে নিজের বাবা বলে ডাকতে ভালোবাসেন। বীজপুরে যাঁরা রাজনীতিতে রয়েছেন বা কোনও পদে রয়েছেন, তাঁদের কয়েকটা জিনিস মাথায় রাখা দরকার। যোগ্যতার দিক দিয়ে অমিত মিত্রকে ছাড়া এই চত্বরের কোনও বিধায়ক আমার ধারেকাছে আসেন না। আমার বিরুদ্ধে কোনও ক্রিমিনাল কেস নেই। অথচ তাঁরা ডাক পাচ্ছেন, আমি পাচ্ছি না। শিক্ষার মান একজন শিক্ষিত লোকই বুঝতে পারবেন। বোমা তৈরি করাটাও একটা শিক্ষা। কিন্তু স্কুলে গিয়ে ওটা শেখানো আমার মনে হয় না ঠিক হবে। তবে সব শিক্ষাই সবার রপ্ত করা দরকার। এখন এরা বুঝেছে যে এদেরকে আনলে হয়তো উন্নয়নটা হবে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

প্রসঙ্গত, একসময়ের তৃণমূলের অঘোষিত দুনম্বর নেতা মুকুল রায় দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিতেই তাঁর পুত্র শুভ্রাংশু রায়কে দলের মধ্যে কোনঠাসা করার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যায়। রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগনা তৃণমূল কংগ্রেস জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক প্রকাশ্যেই বলেন, শুভ্রাংশু রায়ের দল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা। যদিও শুভ্রাংশু রায় নিজে জানিয়েছিলেন, দল তাঁকে তাড়িয়ে দিলেও তিনি একজন সাধারণ তৃণমূল সমর্থক হিসাবেই থেকে যাবেন সারাজীবন। কিন্তু এরপরেও বরফ গলেনি, মুকুল রায়ের বিরোধী শিবিরের লোক বলে পরিচিত ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিং ও নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিককে বীজপুরের দায়িত্ত্ব দেওয়া হয় দলের তরফ থেকেই। আর তারপরেই নাকি বীজপুরে দুষ্কৃতী-দৌরাত্ম্য বেড়ে গেছে বলে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছিলেন শুভ্রাংশু রায়। এরপরেই কার্যত দলীয় কর্মসূচিতে ব্রাত্য হতে থাকেন তিনি। আর বহুদিন বাদে মুখ খুলেই দলের বিরুদ্ধে এইভাবে ক্ষোভ উগরে দেন। এই পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, তৃণমূলে ভদ্রলোকদের টিকে থাকা মুশকিল। যাঁরা সাহস জোগাড় করতে পারছেন, একে একে তাঁরা বিজেপিতে আসছেন। বাংলার পরিবর্তনের জন্য যাঁরা বিজেপিতে আসতে চাইবেন সবাইকে স্বাগত। সকলেই যথাযথ সম্মান পাবেন এখানে। স্বভাবতই নববর্ষের প্রাক্কালে মুকুল-পুত্রের বিস্ফোরণ আর নববর্ষের দিন বিজেপি রাজ্য সভাপতির এহেন বার্তায় রাজনৈতিক জল্পনা চরমে পৌঁছেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!