এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > ‘দিদিমনির’ সংখ্যালঘু অঙ্ক উল্টে দিতে নতুন পরিকল্পনা দিলীপ ঘোষের

‘দিদিমনির’ সংখ্যালঘু অঙ্ক উল্টে দিতে নতুন পরিকল্পনা দিলীপ ঘোষের

বাংলায় আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষে ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে রাজনৈতিক পরিবেশ। একের পর এক উত্তপ্ত রাজনৈতিক তরজায় জড়াচ্ছেন রাজনৈতিক নেতারা। আর এই তালিকায় শীর্ষের দিকেই নাম থাকবে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের। একের পর এক মন্তব্য করে রাজ্য-রাজনীতি জমিয়ে দিতে চাইছেন তিনি, এমনকি তাঁর বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক মন্তব্যের জন্য আদালতের কাছে নালিশ পর্যন্ত করেছেন তৃণমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু দিলীপবাবু নিজের মত মন্তব্য করা থেকে কিছুতেই পিছু হটতে চান না। গতকাল বাঁকুড়ার পুয়াবাগানে দলের এক কর্মী সভায় যোগ দিয়ে বিজেপি বাঁকুড়া জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র ও রাজ্য নেতা ডাঃ সুভাষ সরকারকে পাশে বসিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ২০১৩ সালেই তো রমজান মাসে পাঁচ দফায় ভোট হয়েছিল। দিদিমনি সংখ্যালঘু ভোট চলে যাবার ভয় করছেন, সংখ্যালঘুদের সঙ্গে উনি যেভাবে বঞ্চনা করেছেন – সংখ্যালঘুরা আর ওনার সঙ্গে নেই। বিজেপি এবার রেকর্ড সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মধ্য থেকে প্রার্থী করেছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তৃণমূল কংগ্রেসের এই সংখ্যালঘু ভোট বাক্সের পাল্টা টোটকা হিসাবে তিনি বলেছেন, কোন নির্দল প্রার্থী যদি আমাদের সঙ্গে এসে কাজ করতে চান আমরা তাকে সমর্থন করবো। তৃণমূলের গুণ্ডাবাহিনীকে আটকে যাতে মানুষ ভোট দিতে পারেন তার ব্যবস্থা জেলায় জেলায় করা হবে। মজার ব্যাপার হলো পুলিশ শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রেখে ভোট করাবে। যে পুলিশ চারশো কেন্দ্রে মনোনয়ন পত্র জমা করাতে পারলোনা, মাত্র আশিটা এসডিও অফিস ও ৩২০ টা বিডিও অফিসে যেটা পারলো না ৪৯ হাজার বুথে কি করে নির্বিঘ্নে পুলিশ ভোট করাবে? তবে সাধারণ মানুষকে কেউ যদি বাধা দিতে আসে, ভোট লুট করতে আসে – তবে সাধারণ মানুষকে সঙ্গে নিয়ে তা মোকাবিলা করা হবে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!