এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ‘বাঙালি প্রধানমন্ত্রী’ নিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই নতুন ব্যাখ্যা দিলেন দিলীপ ঘোষ – জানুন বিস্তারিত

‘বাঙালি প্রধানমন্ত্রী’ নিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই নতুন ব্যাখ্যা দিলেন দিলীপ ঘোষ – জানুন বিস্তারিত

Priyo Bandhu Media

গতকাল সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সবাইকে অবাক করে দিয়ে হঠাৎ করে বলে ওঠেন, বাংলার যদি কারও প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, তাহলে তাঁর নাম মমতা ব্যানার্জি – এজন্য তাঁর সুস্থ থাকা প্রয়োজন। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে সকলের প্রথমে তাঁর নাম আছে! আমি তাঁর (মমতার) সুস্থ শরীর কামনা করি। তাঁর সুস্থতার ওপর বাংলার ভাগ্য নির্ভর করছে!

গতকাল ছিল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্মদিন – সেই জন্মদিনে রাজনৈতিক সৌজন্য দেখিয়ে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দলের রাজ্য সভাপতি তাঁর সুস্থতার কামনা করতেই পারেন। কিন্তু তা বলে একেবারে দলীয় লাইনের বিপরীতে হেঁটে – রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে একেবারে প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসিয়ে দিলেন! সাংবাদিকদেরও তখন ঘোর কাটছে না! আর তার সাথেই রাজ্যজুড়ে শুরু হয়ে গেছে তীব্র জল্পনা – প্রায় সব রাজনৈতিক নেতাদেরই প্রতিক্রিয়া সামনে আসতে শুরু করে দিয়েছে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এই ঘটনার ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই এবার ‘ড্যামেজ কন্ট্রোলে’ নতুন প্রতিক্রিয়া দিলেন দিলীপবাবু। এদিন সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন! স্বপ্ন দেখতে আপত্তি নেই, কিন্তু যতদিন মোদি প্রধানমন্ত্রী আছেন – ততদিন কারও চান্স নেই! আমি সৌজন্যের রাজনীতি পছন্দ করি, ওনাকে শুধু শুভেচ্ছা জানিয়েছি – এর বেশি কিছু নয়। তৃণমূলের তো এ রাজ্যের বাইরে সিট পাওয়ার সম্ভাবনাই নেই – তাহলে কেন্দ্রে যাবে কী করে?

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, আমি মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্ন দেখার কথাই বলতে চেয়েছি। অর্থাত্‍ গতকাল যা বলেছি তা মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নকে কটাক্ষ করেই! কিন্তু, দিলীপবাবুর এহেন মন্তব্যের পরেও জল্পনা কাটছে না। সূত্রের খবর, দিলীপবাবুর এহেন মন্তব্যের ভিডিও রেকর্ডিং নাকি গতকালই দিল্লিতে শীর্ষনেতৃত্বের কাছে পৌঁছে গেছে। আর কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব যে দিলীপবাবুর এহেন মন্তব্য মোটেই ভালো ভাবে নেন নি তা বলাই বাহুল্য। আর তাই ২৪ ঘন্টার মধ্যেই ‘শাক দিয়ে মাছ ঢাকা’ মন্তব্য কি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্বের নির্দেশেই – প্রশ্নটা ঘুরপাক খাচ্ছে গেরুয়া শিবিরের অন্দরেই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!