এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > একমত হতে পারছেন না মুকুল রায় ও দিলীপ ঘোষ,প্রকাশ্য সভায় মিললো প্রমান

একমত হতে পারছেন না মুকুল রায় ও দিলীপ ঘোষ,প্রকাশ্য সভায় মিললো প্রমান

একমত হতে পারছেন না মুকুল রায় ও দিলীপ ঘোষ,প্রকাশ্য সভায় মিললো প্রমান ।তাছাড়া একই দলের দুই নেতার আসন্ন নির্বাচনকে নিয়ে দুই ভিন্ন রণকৌশল নিয়ে রীতিমতো বিভ্রান্ত বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। এদিন বিজেপির তরফে নদীয়ার রানাঘাটে তিন জেলার কর্মী সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল । ঐ সভায় বিজেপির দুই নেতার ভাষণে উপস্থিত বিজেপি কর্মী সমর্থকরা ভয়নকভাবেই দ্বিধাগ্রস্থ । সভায় মুকুল বাবু যখন বলছেন ,”তৃণমূলের বিক্ষুব্ধদের টিকিট দিয়ে দলের জয়ের পথ মসৃণ করতে হবে।” তখন নিজের ভাষণে দিলীপ বাবু জানাচ্ছেন ,”কখনই তৃণমূলের বিক্ষুব্ধদের দলের টিকিট দেওয়া উচিত নয়।তৃণমূলের বিক্ষুব্ধদের প্রার্থী করা মানে, তা হবে দলের পক্ষে বুমেরাং। কেননা, তাঁরা জেতার পর সহজেই তৃণমূলে ফিরে যেতে পারেন। ফলে এসব ক্ষেত্রে বিক্ষুব্ধদের আগে নির্দল হিসেবে জিতে আসা জরুরি। তারপর তাঁদের দলে নেওয়া যেতে পারে।” শুধুমাত্র মনোনয়ন প্রসঙ্গেই দুই নেতার মতান্তর হয়নি। সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার নিয়েও এদিন দুই নেতাকে আলাদা মতামত পোষণ করতে দেখা গেলো। দিলীপবাবু যখন বললেন, ”ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করার প্রবণতা রয়েছে একশ্রেণির। সেই প্রবণতা কমাতে হবে।” মুকুল বাবু জানালেন , ”যে যাঁর ব্যক্তিগত মত জাহির করতেই পারে। সেটা করার যেমন অধিকার রয়েছে তাঁর, তেমনই তা যথাযোগ্য মর্যাদা দিয়ে দেখা দরকার দলের।” মুকুল রায় বিজেপিতে যোগদান করার পর থেকেই দুটি সমান্তরাল শিবির চলছে বিজেপিতে। ‘রাজনীতিতে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব থাকবেই।’এই মন্তব্য করে জল্পনাকে আরো বাড়িয়েছেন দিলীপবাবু।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!