এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিদেশী এজেন্সি দিয়ে প্রাণে মারার ছক দিলীপ ঘোষকে? তড়িঘড়ি কড়া ব্যবস্থা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের

বিদেশী এজেন্সি দিয়ে প্রাণে মারার ছক দিলীপ ঘোষকে? তড়িঘড়ি কড়া ব্যবস্থা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের

লোকসভা নির্বাচনের সময়েই গেরুয়া শিবির হুঙ্কার ছুঁড়েছিল – উনিশে হাফ আর একুশে সাফ! অর্থাৎ ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে অন্তত ২১ টি আসন জিতে নিয়ে, ২০২১ এর বিধানসভা নির্বচনে বাংলার মসনদ থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে হঠানোর লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছিল বিজেপি। তৃণমূল কংগ্রেস সেই দাবিকে প্রাথমিক ভাবে উড়িয়ে দিলেও, বিজেপির সেই হুঙ্কার যে আদতে ‘ফাঁকা আওয়াজ’ ছিল না, লোকসভার ফলাফল সামনে আসতেই তা স্পষ্ট।

আর তাই, গেরুয়া শিবির এবার কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে মিশন-২১ এর লক্ষ্যে। স্বাভাবিকভাবেই এই যুদ্ধেও গেরুয়া শিবিরের সেনাপতি হতে চলেছেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ইতিমধ্যেই, তাঁর নেতৃত্বে বাংলায় সাংগঠনিক শক্তিবৃদ্ধির পাশাপাশি অন্যান্য দল ভাঙিয়ে গেরুয়া শিবিরকে শক্তিশালী করার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। আর এসবের মাঝেই সামনে এল এক বিস্ফোরক তথ্য। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা রিপোর্ট অনুযায়ী এবার বিদেশী এজেন্সি দিয়ে প্রাণঘাতী হামলা হতে পারে বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদের উপর।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এতদিন পর্যন্ত বাংলায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ পেতেন Y+ ক্যাটাগরির নিরাপত্তা। কিন্তু সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পরেই তা বাড়িয়ে Z ক্যাটাগরির করা হয়েছে। কিন্তু তাতেও মিলছে না স্বস্তি! কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা রিপোর্ট অনুযায়ী বিদেশী এজেন্সিকে দিয়ে দিলীপবাবুকে নাকি একেবারে প্রাণে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। আর তাঁর প্রাণসংশয়ের এহেন গোয়েন্দা রিপোর্ট পেতেই রীতিমত নড়েচড়ে বসেছে স্বরাষ্ট্র দপ্তর।

সূত্রের খবর, দিলীপ ঘোষের প্রাণসংশয় নিয়ে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা বাহিনীর ‘রেড অ্যালার্ট’ সামনে আসতেই তড়িঘড়ি তাঁর বাসস্থান বদল করেছে স্বরাষ্ট্র দপ্তর। সল্টলেকের যে বাড়িতে দিলীপবাবু এতদিন থাকতেন, সেখান থেকে রাতারাতি তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে। প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের আগেই দিলীপবাবুর কনভয়ে বারবার হামলার ঘটনা ঘটেছে, আর এবার প্রাণঘাতী গোয়েন্দা রিপোর্ট সামনে আসতেই রীতিমত নড়েচড়ে বসেছে গেরুয়া শিবির থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সকলেই। এতদিন দিলীপবাবুর নিরাপত্তার জন্য ১৮ জন রক্ষী থাকলেও, বর্তমানে বাড়িয়ে তা ৩০ জন করা হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!