এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > জল্পনা বাড়িয়ে সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে আপৎকালীন বৈঠকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি

জল্পনা বাড়িয়ে সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে আপৎকালীন বৈঠকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি

পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে রাজ্য সরকারি কর্মীদের ভূমিকা অসীম বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। একদিকে দীর্ঘদিন ধরে বকেয়া ডিএ ও কেন্দ্রীয় হারে বেতন না পেয়ে ক্ষোভে ফুঁসছেন তাঁরা। অন্যদিকে নির্বাচনী দায়িত্ত্বপালনে গিয়ে রাজনৈতিক কর্মীদের হাতে শারীরিক ও মানসিক হেনস্থা হাতে হচ্ছে, অথচ রাজ্য সরকার পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করছে না বলে ক্ষোভ বাড়ছে। আর এই ক্ষোভ বর্তমানে আগ্নেয়গিরির পর্যায়ে গিয়েছে ভোট করাতে গিয়ে স্কুল শিক্ষক রাজকুমার রায়ের মর্মান্তিক পরিণতির ফলে। এই অবস্থায় গতকাল হঠাৎ করেই সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে আপৎকালীন বৈঠকে বসেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও বিজেপি রাজ্য নেতা তথা বিজেপির তরফে সরকারি কর্মচারী পরিষদের পর্যবেক্ষক সায়ন্তন বসু।

এই বৈঠকে কি বিষয়ে আলোচনা হয়েছে সেই সম্পর্কে মুখ খুলছেন না কেউই। কিন্তু কিছুদিন আগেই সরকারি কর্মচারী পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশিস শীল দাবি করেছিলেন, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন রাজ্যে গেরুয়া শিবির ক্ষমতায় এলে সরকারি কর্মচারীদের সমস্ত বকেয়া দাবি-দাওয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে। আর সেই পরিপ্রেক্ষিতে এই বৈঠক অত্যন্ত গুরুত্ত্বপূর্ন বলেই মনে করছেন সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিকমহল। তবে সূত্রের খবর, আগামীদিনে সরকারি কর্মচারীদের কর্মসূচি ও সেই কর্মসূচিতে কিভাবে গেরুয়া শিবিরের সাহায্য পাওয়া যাবে সেই নিয়েই আলোচনা হয়ে থাকতে পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শীর্ষনেতার কথায় রাজ্য-রাজনীতিতে সরকারি কর্মচারীদের গুরুত্ত্ব অপরিসীম। বর্তমান রাজ্য সরকার দিনের পর দিন বঞ্চনা করে যাচ্ছে, সেই পরিস্থিতিতে যদি অন্য কোনো রাজনৈতিক দল পাশে দাঁড়াতে চায় এবং সরকারি কর্মচারীদের এই বঞ্চনার হাত থেকে সুরাহা দিতে সাহায্য করে তবে তা সবসময়েই স্বাগত। আর সরকারি কর্মচারীদের ক্ষোভ যে কোন পর্যায়ে পৌঁছেছে তা রাজ্য সরকার বুঝতে পারবে আগামীদিনের যেকোন নির্বাচনের পোস্টাল ব্যালট খুললেই। সেই পরিপ্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষ ও সায়ন্তন বসুর উপস্থিতিতে কাল অতি গুরুত্ত্বপূর্ন এক বৈঠক হয়েছে, যার প্রভাব আগামীদিনে রাজ্য-রাজনীতিতে পড়তে বাধ্য। তবে সরকারি কর্মচারী পরিষদ তাদের অফিসিয়াল প্রেস-বার্তায় গতকাল বিভিন্ন জেলা থেকে একঝাঁক নতুন কর্মীর সংগঠনে যোগ দেওয়ার খবর প্রকাশ করেছে। সংগঠনের দাবি, আগামীদিনে রাজ্যজুড়ে বিপুল পরিমান সরকারি কর্মী সরকারি কর্মচারী পরিষদে যোগ দিতে চলেছেন, তার প্রায় সব প্রস্তুতিই সম্পন্ন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!