এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দিদিকে বল – তে এবার বড় ভূমিকা কড়াপাক সন্দেশের জানুন বিস্তারিত

দিদিকে বল – তে এবার বড় ভূমিকা কড়াপাক সন্দেশের জানুন বিস্তারিত

2019 সালের লোকসভা ভোটে বিজেপির কাছে বেশ কিছুটা পিছিয়ে পড়ার পর পরবর্তী 2021 এর বিধানসভা ভোটের জমি শক্ত করতে টিম পিকের পরামর্শ অনুযায়ী রাজ্যে তৃণমূল নেতৃত্বের ‘দিদিকে বল’ জনসংযোগ কর্মসূচি শুরু হয়।

এই কর্মসূচিতে পথে নামেন মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংসদরা। জনসংযোগ করতে গিয়ে জনগণের কাছ থেকে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের বিরুদ্ধে প্রবল ক্ষোভ বেরিয়ে আসে। একের পর এক কাটমানির অভিযোগ দায়ের হয়, যা সামাল দিতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে তৃণমূল নেতৃত্বকে।

তবে এবার তৃণমূলের তরফ থেকে এক অভিনব পন্থা নেওয়া হয়েছে জনসংযোগ কর্মসূচি ক্ষেত্রে। মিষ্টি খাইয়ে নালিশ শোনার কাজ শুরু করেছেন বৈদ্যবাটির তৃণমূল নেতৃত্ব। এই অভিনব পদ্ধতি শুরু করেছেন হুগলীর বৈদ্যবাটি পুরসভার কাউন্সিলর সুবীর ঘোষ। ‘দিদিকে বল’ কর্মসূচি চালাতে গিয়ে রীতিমতো মিষ্টি খাইয়ে এলাকার জনগণের অভাব অভিযোগ শুনছেন তিনি। মিষ্টির মধ্যেই লেখা রয়েছে ‘দিদিকে বল’ জনসংযোগ কারী নাম্বারটি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এ প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতারা জানিয়েছেন, সন্দেশ দিয়ে জনসংযোগ প্রচারের ব্যবস্থা টি জনগণের মধ্যে সাড়া ফেলে দিয়েছে। মিষ্টি খাইয়ে শারদ উৎসবের সূচনা করা হচ্ছে বলেই জানিয়েছেন তাঁরা।

এ প্রসঙ্গে বিরোধীদের দাবি, মিষ্টি খেয়ে জনগণ কি তাদের সুবিধা অসুবিধার কথা বলতে পারছে? সে বিষয়ে প্রশ্ন কিন্তু থেকেই যাচ্ছে। তবে ‘দিদিকে বল’ জনসংযোগ কর্মসূচি যে লক্ষ্যে নেওয়া হয়েছিল, তাতে এই অভিনব পদ্ধতি অন্য মাত্রা যোগ করবে বলে দাবি রাজনৈতিক মহলের একাংশের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!