এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ডেঙ্গু রোধে 14 লক্ষ দিয়ে দাবি কোটি কোটির! রাজ্যের বিরুদ্ধে “বিভ্রান্ত”র অভিযোগ মেয়র পরিষদের

ডেঙ্গু রোধে 14 লক্ষ দিয়ে দাবি কোটি কোটির! রাজ্যের বিরুদ্ধে “বিভ্রান্ত”র অভিযোগ মেয়র পরিষদের

প্রায় বিভিন্ন ইস্যুতেই শাসক-বিরোধী তরজা লক্ষ্য করা গেছে শিলিগুড়ি পৌরসভায়। এই শিলিগুড়ি পৌরসভা বামেদের দখলে থাকলেও রাজ্যের শাসন ক্ষমতায় তৃণমূল থাকায় এবং ডাবগ্রাম বিধানসভার বিধায়ক তথা মন্ত্রী তৃণমূলের গৌতম দেব হওয়ায় মাঝেমধ্যেই শিলিগুড়ি পৌরসভার মেয়র তথা বাম নেতা অশোক ভট্টাচার্যের সঙ্গে গৌতমবাবুর বিবাদ লক্ষ্য করা গেছে।

আর এবার সেই পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের বিরুদ্ধে ডেঙ্গি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগ তুলতে দেখা গেল শিলিগুড়ি পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ শঙ্কর ঘোষকে। যা নিয়ে নতুন করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে শিলিগুড়িতে।

সূত্রের খবর, শুক্রবার শিলিগুড়ি পৌরসভায় একটি সাংবাদিক বৈঠকে শঙ্কর ঘোষ বলেন, “ডেঙ্গি প্রতিরোধের জন্য রাজ্য মাত্র 14 লক্ষ টাকা দিয়েছে। কিন্তু মন্ত্রী কোটি কোটি টাকা দেওয়ার কথা বলছেন। মন্ত্রীর এই বিবৃতিতে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তিনি আতঙ্ক তৈরি করছেন। যারা কাজ করবেন, এতে তাদের মনোবল ধাক্কা খাবে।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কিন্তু ডেঙ্গি নিয়ে পর্যটনমন্ত্রী দুই একটি বৈঠক করলেও কেন তার বিরুদ্ধে এইভাবে সরব হচ্ছেন শিলিগুড়ি পৌরসভার মেয়র পারিষদ! এদিন এই প্রসঙ্গে শঙ্করবাবু বলেন, “পুর কমিশনার, সচিবদের ডাকছেন। কিন্তু তিনি আমাকে ডাকেন না। মানুষ আমাদের নির্বাচিত করেছেন। কিন্তু সেটাকে না মেনে গৌতমবাবু সমান্তরাল প্রশাসন চালাতে চাইছেন।”

এদিকে শিলিগুড়ি পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ শঙ্কর ঘোষ ডেঙ্গি ইস্যুতে বিভ্রান্ত তথ্য পেশ করার অভিযোগ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে তুললেও এদিন তা নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব। তিনি বলেন, “পৌরসভার বিষয়। তাই যা বলার বিরোধী দলনেতা বলবেন।”

এদিকে এই প্রসঙ্গে শিলিগুড়ি পৌরসভার বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার বলেন, “মেয়র যেভাবে বলে দিয়েছেন, স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ সেভাবে তোতাপাখির মতো বলছেন। মানুষের কষ্ট হচ্ছে, আর মেয়র বিদেশে ঘুরছেন। তিনি ঘুরুন। কিন্তু আমরা মানুষের পাশে রয়েছি।” সব মিলিয়ে ফের রাজনৈতিক তরজা চরমে উঠল শিলিগুড়িতে।

আপনার মতামত জানান -
Top