এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকার ও যুব মোর্চার সম্পাদককে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকার ও যুব মোর্চার সম্পাদককে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কোতুলপুর তীর্থময়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২১৫ নম্বর বুথে বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকারের সঙ্গে তৃণমূল কর্মীদের হাতাহাতি শুরু হয়। জানা যাচ্ছে ঘটনার সূত্রপাত হয় আজ দুপুর ১২ টা নাগাদ।

বিজেপি প্রার্থী ওই বুথে যান সেখানে দিয়ে দেখেন যে ওই বুথে ভোটের লাইনে কয়েকজন এমন রয়েছেন যাদের বয়স সন্দেহ হয়। আর এর পর তিনি তাদের ভোটার আইডি কার্ড আছে কিনা জানতে চান। পাশাপাশি তারা বৈধ ভোটের কিনা সে নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। আর এর পরেই যাদের নিয়তে প্রশ্ন তোলা হয় তারা লাইন থেকে বেরিয়ে বাইরে চলে যাচ্ছিলেন। এর পর তাদের আটকে বিজেপি কর্মীরা যখন পাল্টা প্রশ্ন করেন তারা কোনো উত্তর না দিয়ে সেখান থেকে চলে যাবার চেষ্টা করেন। তাদের আটকে ফের প্রশ্ন করতেই শুরু হয় উতপ্ত বাক্য বিনিময়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এই সময় বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকার দাবি করেন যে এটা তৃণমূল কংগ্রেস বুথ দখল করেছে। যারা ভোটের লাইনে ছিলেন তারা আদেও ভোটার নন। তাদেরকে তৃণমূল বাহিনী ভুয়ো ভোট দেওয়াচ্ছে। সেই সময় বিজেপি প্রার্থী ও কর্মীদের সঙ্গে এই নিয়ে বচসা বাধে। তা হাতাহাতি পর্যায়ে চলেযায়।  তৃণমূল কর্মীরা বিজেপি প্রার্থী ও কয়েকজন বিজেপি কর্মীকে মারধর করে বলে অভিযোগ। এই সময় কেন্দ্রীয় বাহিনী গেট বন্ধ করে দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিলে বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায় ওই বুথ।তৃণমূলের দাবি অকারণ দেবজিৎ সরকার ও তার দলবল তাদের উপর হামলা করে। তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা কিছু করে নি।

এদিকে এই নিয়ে ফেইসবুক পেজ এ দেবজিৎবাবু পোস্ট করেন যে, — শ্রীরামপুরের ডোমজুর বিধানসভার জগদীশপুর মোড়ে আমাকে ও আমার সহকারী রাজ‍্য যুব মোর্চার সম্পাদক শুভঙ্কর দত্ত মজুমদারকে গুরুতর ভাবে মারধর করে। বারবার নির্বাচন কমিশনকে জানানো সত্ত্বেও তারা নিশ্চুপ, কোনো কেন্দ্রীয় বাহিনীর আমাদের কাছে পাঠাননি।

শ্রীরামপুরের ডোমজুর বিধানসভার জগদীশপুর মোড়ে আমাকে ও আমার সহকারী রাজ‍্য যুব মোর্চার সম্পাদক শুভঙ্কর দত্ত মজুমদারকে গুরুতর…

Posted by Debjit Sarkar on Monday, May 6, 2019

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!