এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দেবশ্রীকে নিয়ে দোটানায় তৃণমূল, বিজেপি সদর দপ্তরে যাওয়ার কারণ নিয়ে ধন্দে শাসক শিবির

দেবশ্রীকে নিয়ে দোটানায় তৃণমূল, বিজেপি সদর দপ্তরে যাওয়ার কারণ নিয়ে ধন্দে শাসক শিবির

গত বুধবার শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিতে নাম লেখান। আর শোভনবাবু এবং বৈশাখী দেবী যখন বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য দিল্লির বিজেপির সদর দপ্তরে পাড়ি দিয়েছেন, ঠিক তখনই সেখানে উপস্থিত হতে দেখা যায় রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়কে।

আর এরপরই জল্পনা ছড়ায় যে, শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগ দিলেও দেবশ্রী রায়কে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে দেখা যায়নি। যা নিয়ে অনেকের মনেই তৈরি হয় প্রশ্ন।

তাহলে বিজেপির সদর দপ্তরে কেন গেলেন দেবশ্রী দেবী! জানা যায়, এদিন যখন বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে যান শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়, ঠিক তখনই তারা সেখানে গিয়ে দেখতে পান যে, তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ও বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য বিজেপির সদর দপ্তরে রয়েছেন।

আর এরপরই দেবশ্রী রায় যদি বিজেপিতে যোগ দেন, তাহলে তারা বিজেপিতে নাম লেখাবেন না বলে গেরুয়া শিবিরের নেতৃত্বকে জানিয়ে দেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। যার পরে দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদান কার্যত স্তব্ধ হয়ে যায়। একাংশ বলছেন, বামেদের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত রায়দিঘি থেকে দেবশ্রী রায়কে জিতিয়ে আনার পেছনে মূল কৃতিত্ব ছিল এই শোভন চট্টোপাধ্যায়েরই।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

তবে পরবর্তীকালে শোভনবাবুর সঙ্গে দেবশ্রী দেবীর সম্পর্কের তিক্ততা শুরু হয়। যার কারণে এদিন শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগ দিলে দেবশ্রী রায় বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন তা শুনেই দেবশ্রী রায় বিজেপিতে যোগ দিলে তিনি যোগ দেবেন না বলে জানিয়ে দেন শোভন চট্টোপাধ্যায়।

কিন্তু যখন তিনি তৃণমূলের বিধায়ক, তখন কেন তিনি বিজেপি সদর দপ্তরে গেলেন! তাহলে কি এবার দেবশ্রী রায়ের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে তৃণমূল! তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে শুরু হয়েছে জল্পনা। সূত্রের খবর, এবার আপাতত দেবশ্রী রায়ের বিরুদ্ধে কোনরূপ কড়া পদক্ষেপ নিতে চাইছে না তৃণমূল।

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “উনি বিজেপিতে যাবেন বলে আমাদের তো কিছু জানাননি। সংবাদমাধ্যমে এই ধরনের খবর দেখিনি। তাই শুধু শুধু ওনার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে! তবে ওর কাছে জবাব চাওয়া হবে, কেন তিনি বিজেপির দপ্তরে গিয়েছিলেন!” আর এই ঘটনা নিয়েই এবার তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। তাহলে কি তৃণমূলের কোন বিধায়ক এখন বিজেপির দপ্তরে গেলেও তাকে ছেড়ে দেবে তৃণমূল!

তবে এই প্রসঙ্গে কিছুটা আক্ষেপের সুরে রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “ও এদিকে না ওদিকে, কিছু বোঝা যাচ্ছে না। ওর সঙ্গে দেখা হলে খারাপ লাগবে।” তবে তৃণমূল দেবশ্রী রায় সম্পর্কে নরম মনোভাব নিলেও দেবশ্রী দেবী আদৌ কি বিজেপিতে যোগ দেবেন! এই ব্যাপারে ঠিক কি বলছে বিজেপি!

এদিন এই ব্যাপারে বিজেপি নেতা মুকুল রায় বলেন, “গত পাঁচ বছরে দেবশ্রীর সঙ্গে আমার কোনো কথা হয়নি। তিনি যে বিজেপিতে যোগ দিতে চান বা বিজেপি কারও সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন! এমন কোনো তথ্য আমার কাছে ছিল না।” অন্যদিকে আরও একধাপ এগিয়ে দেবশ্রীর সঙ্গে তার কোনো পরিচয়ই নেই বলে জানান বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার। সব মিলিয়ে দেবশ্রী রায়কে নিয়ে এখন ধন্ধে রাজ্য রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!