এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পাঁচ বছর দেখতে দেখতে কেটে গেল, যা কথা দিয়েছিলাম অনেকটা হয়েছে – তবে আরও কাজ বাকি আছে: দেব

পাঁচ বছর দেখতে দেখতে কেটে গেল, যা কথা দিয়েছিলাম অনেকটা হয়েছে – তবে আরও কাজ বাকি আছে: দেব

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রস্তাবিত ১৯’এর ব্রিগেড সমাবেশের দামামা বেজে গিয়েছে। চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। এই প্রেক্ষিতে
প্রশাসনিক কাজকর্মের হালচাল জানতে নেত্রীর নির্দেশে জেলায় জেলায় তদারকি করে বেড়াচ্ছেন শাসকদলের হেভিওয়েটরা। সেরকমই একগুচ্ছ কর্মসূচি নিয়ে গতকাল পশ্চিম মেদিনীপুর পাড়ি দিয়েছিলেন তারকা সংসদ সদস্য দেব ওরফে দীপক অধিকারী।

সেখানে কেশপুর ব্লকের সাহসপুর ঘোষাল উচ্চ বিদ্যালয়ে এসেছিলেন তিনি। প্রিয় তারকাকে দেখতে স্কুল চত্বরে রেকর্ড পরিমান ভীড় জমায়েত হয়। উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে স্কুল পড়ুয়ারা৷ সকলকে ইংরাজি নতুন বছরের শুভেচ্ছা দিয়ে ছাত্রছাত্রীদের তিনি মন দিয়ে পড়াশুনো করার বার্তা দেন।

পাশাপাশি জানান,”কেশপুর আমাকে সবসময়ই টানে। এটা নতুন করে বলার কিছু নেই। পাঁচ বছর দেখতে দেখতে কেটে গেল। এই কয়েকদিনে আপনাদের মাঝখানে থেকে আমি এখন অনেকটাই পরিণত।” এই বিগত পাঁচ বছরে তিনি অনেক কিছু শিখেছেন বলে দাবী করে সাধারণ মানুষকে পাশে থাকার জন্যে ধন্যবাদ দিতেও ভুললেন না টলিউডের এই জনপ্রিয় অভিনেতা।

 

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কেশপুরের স্কুলের পর তিনি আনন্দপুর শিশু উদ্যানের শিলান্যাস অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সেখানেও সকলের কুশল জানতে চেয়ে নিজের সৌজন্যবোধের পরিচয় দেন দেব। পাশাপাশি নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানাতেও ভোলেন না তিনি। পরে সংবাদমাধ্যমের একটি প্রশ্নের উত্তরে বলেন,কথা অনুযায়ী উন্নয়ন হয়েছে এলাকায়৷ আগামী দিন বাকি কাজ গুলো করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

এদিন দেবকে পাশে রেখেই তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি বলেন,এতো বড় মাপের তারকা সময় বের করে মানুষের মাঝে এসে বুঝিয়ে দিয়েছেন,ইচ্ছে থাকলে সবকিছুই করা যায়। এদিন একাধিক অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ায় কোনো জায়গাতেই খুব বেশি সময় দিতে পারেননি তিনি। সব জায়গাতেই তাকে দেখতে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়।

অন্যদিকে,এদিন থেকেই পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্মস্থান বীরসিংহ গ্রামে প্রতি বছরের মতো এবার বিদ্যাসাগর মেলা শুরু হয়েছে। মেলা চলবে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত। সে মেলার উদ্বোধন করলেন রাজ্যের বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিমান বাবুর পাশাপাশি একই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন দেব, দেবশ্রী রায়, ঘাটালের বিধায়ক শঙ্কর দোলই, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তরা সিংহ হাজরা প্রমুখরা। এই অনুষ্ঠানে এসে দেব জানালেন,”এমন একজন মনীষীর জন্মস্থানে আসতে পেরে খুব ভালো লাগছে। অনেক পুণ্য লাভ করলাম বলে মনে হচ্ছে। আপনারা ভালোভাবে এই মেলা উপভোগ করুন।”

উল্লেখ্য,সম্প্রতি ডেবরার সভা থেকে দেব বলেছিলেন,মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছে হলে তিনি আবারও ভোটে দাঁড়াবেন। ফলত পশ্চিম মেদিনীপুরের দেবের এই একদিনের ঝটিকা সফরকে লোকসভা ভোটের প্রচার বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!