এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > নতুন বিতর্ক দাড়িভিট স্কুলে – শিক্ষকদের ‘এলাকা’ না ছাড়তে ‘বিশেষ বার্তা’!

নতুন বিতর্ক দাড়িভিট স্কুলে – শিক্ষকদের ‘এলাকা’ না ছাড়তে ‘বিশেষ বার্তা’!

উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরের দাড়িভিট স্কুলের বিতর্ক যেন থামছে না কিছুতেই। গত 20 সেপ্টেম্বর শিক্ষকের দাবিতে এখানে প্রবল উত্তেজনা ছড়ালে মৃত্যু হয় দুই ছাত্র তাপস বর্মন এবং রাজেশ সরকারের। পুলিশের গুলিতেই ছাত্রদের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রথম থেকেই সরকারের প্রতি চাপ বাড়ায় সেই মৃত ছাত্রের পরিবার থেকে বিরোধী দলগুলো। ‌

পাশাপাশি এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবিতেও সরব হন তারা। কিন্তু ঘটনা ঘটার এতদিন পেরিয়ে গেলেও এখনো পর্যন্ত বন্ধই রয়েছে সেই দাড়িভিট স্কুল। সূত্রের খবর, এই প্রবল সমস্যার মধ্যেই সম্প্রতি সেই দারিভিট স্কুলের প্রধান শিক্ষক একটি এসএমএস বার্তায় সহকারি সমস্ত শিক্ষককে জানিয়েছেন যে, ‘তারা যেন কোনোভাবেই ইসলামপুর ছেড়ে না যান।’

কিন্তুু একাংশের প্রশ্ন, এই ভাবে কি কোন শিক্ষকের উদ্দেশ্যে ফতোয়া জারি করতে পারেন প্রধান শিক্ষক! যদিও বা এই বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন সেই দাড়িভিট স্কুলের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অনিল মন্ডল। তবে জানা গিয়েছে, মহকুমা প্রশাসন থেকেই প্রধান শিক্ষককে সহ শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে এই বার্তা দেওয়ার জন্য মৌখিকভাবে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু এরকম কোন বিষয়ে তিনি কোনোই নির্দেশ দেননি বলে এদিন জানান মহকুমাশাসক মনীশ মিত্র। এদিন তিনি শুধু বলেন, “আগামী 8 ই নভেম্বর এই দাড়িভিট স্কুল খুলতে সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিয়েছে প্রশাসন।” একই কথা বলে এদিন সেই স্কুল খোলার পক্ষেই সওয়াল করেছেন ইসলামপুরের তৃণমূল বিধায়ক কানাইয়ালাল আগরওয়ালও। তবে রাজ্যের বিরুদ্ধে দাড়িভিটের মত চনমন ইস্যুকে হাতে পেয়ে লোকসভার আগে তা হারাতে রাজি নয় গেরুয়া শিবির।

আর তাইতো এদিন শিলিগুড়িতে দলের এক কর্মসূচিতে সেই দাড়িভিট ইস্যুতেই সরকারের প্রবল সমালোচনা করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন তিনি বলেন, এই দাড়িভিটে কিছু ছাত্র ছাত্রীরা বাংলার শিক্ষক চাইলেও সেখানে উর্দু শিক্ষক পাঠিয়েছে সরকার। লোকজনেরা ক্ষেপে আছেন। আর সে কারণেই মন্ত্রী-আমলারা এলাকায় যেতে ভয় পাচ্ছে। আমরা সকলেই চাই স্কুল খুলুক। প্রশাসন সকলকে নিয়ে বসে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করুন।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে এই দাড়িভগট ইস্যুতে এখন শাসক বনাম বিরোধীদের মধ্যে রাজনৈতিক তরজা যে পর্যায়েই যাক না কেন স্কুল অবিলম্বে না খুললে ছাত্র-ছাত্রীরাও যে প্রবল সমস্যার মুখে পড়বে তা বুঝতে পেরে আগামী 8 নভেম্বর সর্বদলীয় বৈঠক ডাকলে এখন সেই বৈঠকে এই দাড়িভিট স্কুল খোলার ব্যাপারে আদৌ কোনো সমাধান বা রফাসূত্র বের হয় কিনা এখন সে দিকেই তাকিয়ে ওয়াকিবহাল মহল।

Top
error: Content is protected !!