এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দাড়িভিট ইস্যুকে সামনে রেখেই শাসকদলের ঘুম ওড়াতে বিশেষ পরিকল্পনায় গেরুয়া শিবির

দাড়িভিট ইস্যুকে সামনে রেখেই শাসকদলের ঘুম ওড়াতে বিশেষ পরিকল্পনায় গেরুয়া শিবির

গতবছর সেপ্টেম্বরের রাজ্য রাজনীতির সবথেকে চর্চিত ইস্যু দাড়িভিট কাণ্ডকে সামনে রেখে আসন্ন লোকসভা ভোটে রাজ্য সরকার বিরোধী প্রচার জোরদার করতে চলেছে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপি। পাশাপাশি জেলার কোন কোন সমস্যায় কোনো ভ্রূক্ষেপ করেনি রাজ্যসরকার,সেগুলো তুলে ধরেও ভোটের বাজারে তৃণমূলবিরোধী সুর চড়া করার প্রস্তুতি নিচ্ছে গেরুয়াশিবির।

বিজেপির তরফ থেকে এখনো লোকসভা ভোটের প্রার্থী চূড়ান্ত না হলেও প্রচার নিয়ে কোনোরকম অবহেলা করতে চাইছে না পদ্মশিবির। এখনো বেশ কিছু বুথে কমিটি তৈরি করে উঠতে না পারলেও লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে সংগঠন শক্তিশালী করার কাজ শুরু করে দিয়েছে বিজেপি। তবে দাড়িভিট ইস্যুকে হাইলাইট করে বিজেপি ভোটের বাজারে নাম কিনতে পারবে না বলেই মনে করছে তৃণমূল।

এ ব্যাপারে বিজেপির উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি নির্মল দাম প্রকাশ্যেই বলেন,রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে দাড়িভিট কাণ্ডকেই প্রচারের হাতিয়ার করা হবে। কারণ দাড়িভিট কাণ্ডের পর এতোগুলো মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে পারেনি রাজ্য পুলিশ।

সিআইডির হাতে তদন্তভার থাকলেও তারা কারো নামে এফআইআর দায়ের করতে পারেনি। নিহতদের পরিবার সিবিআই তদন্তের দাবী করলেও সেই দাবীও এতোদিনে পূরণ হয়নি। তার উপর জেলার আইনশৃঙ্খলাও ভেঙে পড়েছে আর যোগাযোগ ব্যবস্থাও ঠিকঠাক নেই।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিজেপির প্রার্থী ঘোষণার বিষয়টি রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সিদ্ধান্তের উপর দাঁড়িয়ে রয়েছে। পাশাপাশি বুথ ভিত্তিক কমিটি গঠনের কাজও সমান গতিতে চলছে। বর্তমানে ১৫-২০ টি বুথে কমিটি গঠন বাকি রয়েছে। সেটাও এরমধ্যে হয়ে যাবে। নির্বাচনী প্রচার শুরু হওয়ার পাশাপাশি দেওয়াল লিখনের কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। প্রার্থীদের নাম ঘোষণা হলেই দেওয়ালে নাম লিখে দেওয়া হবে বলেও জানালেন তিনি।

তবে ইসলামপুরের বিধায়ক তৃণমূল কংগ্রেসের কানাইয়ালাল আগরওয়ালের বক্তব্য,দাড়িভিট নিয়ে বিরোধীরা যতোই ভোটের বাজার গরম করার চেষ্টা করুক না কেন নির্বাচনে কোনো প্রভাবই ফেলতে পারবে না। এ নিয়ে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে তদন্ত চলছে বলেও জানালেন তিনি। সঠিক সময়ে সব প্রকাশ করা হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শাসনে গোটা রাজ্য জুড়েই ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। সেই সূত্রে দাড়িভিটেও উন্নয়ন হয়েছে বলেই তৃণমূলের জয়ের পক্ষে সওয়াল তুললেন তিনি।

প্রসঙ্গত,গত বছর সেপ্টেম্বরের ২০ তারিখ দাড়িভিট স্কুলে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল ইসলামপুরে। বাংলা শিক্ষকের বদলে উর্দু শিক্ষক নিয়োগ করলে প্রতিবাদে রাস্তায় নামে ছাত্ররা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে রাজ্যপুলিশের গুলিতে নিহত হয় দুই ছাত্র। ঘটনায় বিজেপির নেতৃত্ব রাজ্যসরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে নিহতের পরিবার সহ গোটা জেলা।

দিলীপ ঘোষেদের সহোযোগিতায় তদন্তের আবেদন করে রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হয় নিহতের পরিবার। এরমধ্যে রাজ্যের শাসকদলের নেতারা বহুবার নিহতদের পরিবারের কাছে গিয়েছিল। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেও কোনোভাবে দাড়িভিটবাসীর ভরসা অর্জন করতে পারেনি তারা। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে ভোটের প্রচার কর্মসূচি জোরদার করতে চাইছে গেরুয়াশিবির। এখন শাসকদলের ঘুম ওড়াতে বিজেপি কতোটা সফল হয় সেটাই দেখার!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!