এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > দাড়িভিটের ক্ষোভের আগুনের পাশে থেকেই উপনির্বাচনের প্রচার শুরু গেরুয়া শিবিরের

দাড়িভিটের ক্ষোভের আগুনের পাশে থেকেই উপনির্বাচনের প্রচার শুরু গেরুয়া শিবিরের

ইসলামপুর দাড়িভিটের স্মৃতি এখনও মোছেনি। পুলিশের গুলিতে রাজেশ এবং তাপসের মৃত্যুকে এখনও ভুলতে পারেননি গ্রামবাসীরা। আর এবার ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে এই দাড়িভিটের ঘটনাকেই তুলে ধরে শাসকের বিরুদ্ধে জোর প্রচারে নেমে পড়ল বিরোধীরা।

বস্তুত, এই ইসলামপুর বিধানসভার বিধায়ক কানাইয়ালাল আগরওয়াল এবার রায়গঞ্জ লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ায় ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি শূন্য হয়ে যাওয়ায় সেখানে নির্বাচনের দিন ঘোষণা হয়। আর সেই মতই এখানে তৃণমূলের তরফে ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে প্রার্থী করা হয় জনাব আব্দুল করিম চৌধুরীকে, আর অন্যদিকে বিজেপির পক্ষ থেকে প্রার্থী করা হয় সৌম্যরুপ মন্ডলকে। আর নির্বাচনী ময়দানে ঝাঁপিয়ে পড়েই এবার ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্র দখল করতে মঙ্গলবার দুপুরে সেই দাড়িভিট কাণ্ডে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যান বিজেপি প্রার্থী সৌম্যরুপ মন্ডল।

সূত্রের খবর, এদিন নিহত ছাত্র তাপস বর্মনের মার সাথে দেখা করে দাড়িভিট কাণ্ডে গুলিতে জখম বিপ্লব সরকারের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলে সেখান থেকে দুই পরিবার এবং দলীয় কর্মী সমর্থকদের নিয়ে দোলঞ্চা নদীর কাছে শ্মশানে গিয়ে সেখানে নিহত ছাত্র তাপস বর্মন এবং রাজেশ সরকারের দেহ যে মাটিতে কবর দেওয়া হয়েছে সেই মাটিতে মোমবাতি জ্বালিয়ে টিকা পড়ে নিহতদের পরিবারের যাতে সুবিচার পায় তার শপথ নেন বিজেপি প্রার্থী। আর এরপরই তিনি তার ভোট প্রচারে বের হন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের ধারণা, বিজেপি প্রার্থীর প্রচার পর্ব শুরু হওয়ার আগেই দাড়িভিটের দুই নিহত ছাত্রের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে এই দুই ছাত্রের পরিবার যাতে সুবিচার পায় তার শপথ নিয়ে বিজেপি প্রার্থী যে কর্মসূচি পালন করলেন, তা থেকেই পরিষ্কার যে এবার শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপির ইসলামপুর বিধানসভা দখলের ক্ষেত্রে মূল হাতিয়ার হতে চলেছে সেই দাড়িভিট কান্ডই বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

প্রসঙ্গত, গত 2016 সালের নির্বাচনেও ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি তরফে প্রার্থী হয়েছিলেন সৌমরুপ মন্ডল। কিন্তু সেই সময় তাকে হেরে যেতে হয়েছিল। আর এবার 2016 সালের ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে তিনি কি জয় লাভ করতে পারবেন!

এদিন এই প্রসঙ্গে এখানকার বিজেপি প্রার্থী সৌমরুপ মন্ডল বলেন, “ইসলামপুরে এবার যে আমরাই জিতছি এই ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই। রাজেশ ও তাপস ভাষা শহীদ হয়েছে। এই ঘটনা সারা ভারত বর্ষকে নাড়া দিয়েছে। যে রাজনৈতিক দলের জন্য এই দুটি তাজাপ্রাণ চলে গিয়েছে সেই রাজনৈতিক দলকে আমরা হারাবই। এই প্রতিজ্ঞা নিয়ে আমরা এবারের প্রচার শুরু করেছি।”

এদিকে একই দিনে বাম প্রার্থী স্বপন গুহ নিয়োগী চা বলয়ে এবং কংগ্রেস প্রার্থী মোজাফফর হোসেন নিজেদের মতো করে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ব্যাপক প্রচার করেন। সব মিলিয়ে এবার নির্বাচনের দামামা বাজতে না বাজতেই ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ইস্যুকে নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ল রাজনৈতিক দলগুলি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!