এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > হাইকোর্টে ডিএ মামলার রিভিউ পিটিশন – কি দাঁড়াল আজকের শুনানির শেষে? জেনে নিন বিস্তারিত

হাইকোর্টে ডিএ মামলার রিভিউ পিটিশন – কি দাঁড়াল আজকের শুনানির শেষে? জেনে নিন বিস্তারিত

ডিএ নিয়ে স্যাটের মামলায় নথি জমা দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে অতিরিক্ত সময় দেওয়া হবে কিনা সেই নিয়ে রাজ্য সরকারের করা রিভিউ পিটিশনের শুনানি ছিল আজ কলকাতা হাইকোর্টে। সেই মামলার শুনানি এইমাত্র শেষ হল। এই মামলার অন্যতম মামলাকারীর সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই নিয়ে বিস্তারিত জানালেন আমাদের।

তাঁর কথামত, আজ মামলার শুনানির শুরুতেই মামলাকারীদের পক্ষের আইনজীবী সর্দার আমজাদ আলি, প্রধান বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত ও বিচারপতি শেখর ববি শরাফকে নিয়ে গঠিত ডিভিশন বেঞ্চকে জানান, রাজ্যসরকারের তরফে যে রিভিউ পিটিশন করা হয়েছে – তা টেকনিক্যালি ভুল এবং তিনি সেই সমস্ত ভুল আইনের পরিভাষা তুলে ধরে বিচারপতিদের জানিয়ে দেন। এই নিয়ে সরকারি আইনজীবীদের সঙ্গে কিছুটা তর্কাতর্কি হয় আমজাদ সাহেবের।

কিন্তু এরপরেই দুই বিচারপতি আমজাদ সাহেবের কথা মেনে নিয়ে জানিয়ে দেন – এই পিটিশনে সত্যিই ভুল আছে। আর এর পরিপ্রেক্ষিতে, বিচারপতিরা আমজাদ সাহেবের কাছে জানতে চান – যে, যেহেতু এই আবেদনে ত্রুটি রয়েছে, তাহলে তিনি কি চান? কি করা উচিত এখন? এর জবাবে আমজাদ সাহেব স্পষ্ট জানান, তিনি এই বিষয়ে কোন মন্তব্য করবেন না – এই বিষয়ে যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার তা মাননীয় দুই বিচারপতিই নেবেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তখন দুই বিচারপতি রাজ্য সরকারি আইনজীবীদের নির্দেশ দেন, যেহেতু আবেদনে ত্রুটি ধরা পড়েছে, তাই আগামী ১৪ ই ডিসেম্বরের মধ্যে তাঁরা আদালতে নতুন করে আবেদন জমা দিন এবং তার ভিত্তিতে এই মামলার শুনানি আগামী ১৮ ই ডিসেম্বর হবে। কিন্তু, বিচারপতিদের এই নির্দেশ জানার পর, রাজ্য সরকারি আইনজীবীরা স্পষ্ট জানিয়ে দেন – তাঁদের আরো সময় লাগবে। কিন্তু সেই দাবিকে কোনোরকম মান্যতা দেন নি দুই বিচারপতিই। তাঁরা স্পষ্ট জানিয়ে দেন – উপরে উল্লিখিত তারিখেই উপরোক্ত কার্যগুলি হবে।

প্রসঙ্গত, স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুন্যাল বা স্যাট জানিয়ে দিয়েছে – রাজ্য সরকারকে এই রিভিউ পিটিশনের আদেশ আগামী ১৯ শে ডিসেম্বরের মধ্যে স্যাটে জমা করতে হবে। তাই আগামী ১৮ তারিখ এই মামলায় শুনানি হলে – ফয়সালা হয়ে যেতে পারে, রাজ্য সরকার অতিরিক্ত সময় পাবে কিনা। তবে, মামলাকারীদের পক্ষে বেসরকারিভাবে দাবি করা হয়েছে, কলকাতা হাইকোর্টে ‘ভুল’ পিটিশন জমা দেওয়া আদতে নাকি রাজ্য সরকারের সময় বাড়াতে চাওয়ার কৌশল। যা, আদতে আদালতে মান্যতা পেল না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!