এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ডিএ নিয়ে সরকার বনাম কর্মচারীদের তরজা তুঙ্গে, ফের আইনি জটিলতার আশঙ্কা

ডিএ নিয়ে সরকার বনাম কর্মচারীদের তরজা তুঙ্গে, ফের আইনি জটিলতার আশঙ্কা

কিছুদিন আগেই ডিএ মামলার রায়ে কেন্দ্রীয় হারেই রাজ্য সরকারকে ডিএ দিতে হবে বলে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। যে ক্ষেত্রে বড়সড় চাপে পড়ে গিয়েছিল রাজ্যের তৃণমূল সরকার। ইতিমধ্যেই স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের সেই রায়ের সার্টিফাইড কপি মামলাকারী রাজ্য সরকারি কর্মী সংগঠনের আইনজীবী মারফত আধিকারিকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, 2010 সালের পর এখনও পর্যন্ত একবার মাত্র ডিএ রাজ্য সরকারি কর্মীদের দেওয়া হয়েছে। যার জন্য বর্তমানে কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্যের মহার্ঘভাতার ফারাক 29 শতাংশের মতো রয়েছে। আর এই পরিস্থিতিতে স্যাটের পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় হারে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ দেওয়ার নির্দেশ অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

জানা গেছে, রায়ের কপি হাতে পাওয়ার আগামী 6 সপ্তাহের মধ্যে কেন্দ্রীয় হারে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ দেওয়ার যে সংক্রান্ত নীতি, তা সরকারকে তৈরি করতে হবে। ফলে এই ব্যাপারে এখন সরকার স্যাটের নির্দেশ পেয়ে ঠিক কি সিদ্ধান্ত নেয়, এখন সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন অনেকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

যদিও বা এই ব্যাপারে সরকার সদর্থক পদক্ষেপ নেবে কিনা, সেই ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রীর কিছুদিন আগে করা মন্তব্যকে তুলে ধরে ধোঁয়াশাকে জিইয়ে রাখছেন রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা।

কেননা এই রায়ের পরেই মুখ্যমন্ত্রী মন্তব্য করেছিলেন, “অর্থের সংস্থান থাকলেও কর্মচারীদের পাওনা গন্ডা মেটাতে কোনো সমস্যা নেই। চাইলেই তো হবে না, এত টাকা পাব কোথা থেকে!” ফলে সেদিক থেকে রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের এহেন মন্তব্যের নির্দেশ মেনে আদৌ রাজ্য সরকার সরকারি কর্মচারীদের ডিএ দেবে কি না, তা নিয়ে কিছুটা হলেও প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে।

তবে রাজ্য সরকারের এই স্যাটের রায় মেনে নেওয়া উচিত বলে জানিয়েছেন কনফেডারেশন অফ স্টেট গভরমেন্ট এমপ্লয়িজের এক সদস্য। অন্যদিকে স্যাটের এই রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার চিন্তাভাবনা শুরু করেছে রাজ্য সরকার। আর যদি রাজ্য সুপ্রিম কোর্টে যায়, তাহলে প্রয়োজনে তারাও সুপ্রিম কোর্টে যাবে বলে আগাম জানিয়ে রেখেছেন সরকারি কর্মীরা।

সব মিলিয়ে রাজ্য সরকার বনাম সরকারি কর্মচারীদের ডিএ নিয়ে এই মামলা-পাল্টা মামলার যুদ্ধই যদি চলতে থাকে, তাহলে যাকে কেন্দ্র করে সেই মামলা, তারই যদি সমস্যার সমাধান না হয়, তাহলে কবে হবে এই গোটা ব্যাবস্থার সমাধান! প্রশ্ন কর্মচারীদের একাংশের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!