এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ডিএ মামলার লেটেস্ট আপডেট – তীব্র মতবিরোধ শুরু সরকারি আইনজীবীদের মধ্যেই, জানুন বিস্তারিত

ডিএ মামলার লেটেস্ট আপডেট – তীব্র মতবিরোধ শুরু সরকারি আইনজীবীদের মধ্যেই, জানুন বিস্তারিত

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ – গত ৩১ শে কলকাতা হাইকোর্ট এক ঐতিহাসিক রায়ে রাজ্য সরকারের দাবি উড়িয়ে স্পষ্ট জানিয়ে দেয় ডিএ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সাংবিধানিক অধিকার, কোনোমতেই রাজ্য সরকারের দয়ার দান নয়। কিন্তু সেই ডিএর হার কি হবে বা তা বছরে কতবার করে দেওয়া হবে তা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্ট, স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুন্যালকে (স্যাট) সিদ্ধান্ত নিতে নির্দেশ দেয়। সেই মামলার শুনানিও শেষ – শুধুমাত্র রায়দানের অপেক্ষায় রয়েছে মামলাটি।

কিন্তু, সরকারি কর্মচারী সংগঠন কনফেডারেশন অফ গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজের করা সেই মামলার বিরুদ্ধে রিভিউ পিটিশন নিয়ে ফের কলকাতা হাইকোর্টে যায় রাজ্য সরকার। সেই মামলার পুনরায় শুনানি আছে আগামী ৮ ই ফেব্রুয়ারি। কনফেডারেশনের তরফে অন্যতম শীর্ষনেতা ও এই মামলায় প্রথম থেকেই জড়িত থাকা সুবীর সাহা জানিয়েছিলেন যে এই মামলায় সেদিনই রায় ঘোষণা করে দিতে পারে কলকাতা হাইকোর্ট। যেহেতু কলকাতা হাইকোর্ট ওই রিভিউ পিটিশনের কোনো রায়দান করে নি, তাই স্যাট কনফেডারেশনের মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য্য করেছে আগামী ২৮ শে ফেব্রুয়ারী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিকে, ডিএ নিয়ে স্যাটে পৃথক একটু মামলা করে অপর সরকারি কর্মচারী সংগঠন সরকারি কর্মচারী পরিষদ। সেই মামলার শুনানি আজ ছিল, সেই শুনানির শেষে সরকারি কর্মচারী পরিষদের রাজ্য আহ্বায়ক দেবাশীষ শীলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যেহেতু স্যাটে চলা ডিএ নিয়ে দুটি মামলার বিষয়বস্তু এক তাই আমাদের আইনজীবী আজ আবেদন করেন যে দুটি মামলার পরবর্তী শুনানির দিন যে একই হয়। যে কথা শুনে রাজ্য সরকারের তরফে উপস্থিত সিনিয়র আইনজীবী গৌতম পাঠক ব্যানার্জি বলেন, এতে তাঁর কোনো অসুবিধা নেই – যেহেতু দুই মামলার বিষয়বস্তু এক, তাই একইদিনে শুনানি হোক।

দেবাশীষবাবুর বক্তব্য, কিন্তু এরপরেই সরকারের তরফে উপস্থিত এক জুনিয়র আইনজীবী এর প্রতিবাদ করে ওঠেন। তাঁর বক্তব্য, ম্যাটার ইস সেম, বাট নট অ্যাবসলুইটলি সেম – তাই একইদিনে শুনানি হতে পারে না। রাজ্য সরকারের তরফে উপস্থিত দুই আইনজীবীর মধ্যে মতবিরোধ দেখা যায় এই নিয়ে। যদিও স্যাটের বিচারপতিরা রাজ্য সরকারের জুনিয়র আইনজীবীর কথা শুনে হেসে ফেলেন এবং এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন আগামী ১৩ ই মার্চ ধার্য্য করেন। আসলে, এই মামলায় রাজ্য সরকারের হার নিশ্চিত – তাই এখন শুধু সময় নষ্টের খেলা চলছে – কিন্তু এইভাবে কি রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করতে পারবেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী?

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!