এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > স্যাটে ডিএ মামলা – কি হল রাজ্য সরকারের আদালতের স্টে-অর্ডার নিয়ে ফলাফল – জানুন বিস্তারিত

স্যাটে ডিএ মামলা – কি হল রাজ্য সরকারের আদালতের স্টে-অর্ডার নিয়ে ফলাফল – জানুন বিস্তারিত

কলকাতা হাইকোর্টে রাজ্য সরকারি কর্মীরা নিজেদের প্রাপ্য ডিএ নিয়ে ঐতিহাসিক রায় পাওয়ার পর, আদালতেরই সেই মামলা আপাতত স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুন্যালে বিচারাধীন। যেখানে স্যাটের বিচারপতিদের উপর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে – রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের প্রাপ্য ডিএর হার কি হবে এবং বছরে তা কবার করে দেওয়া হবে।

সেই মামলায় শুনানিপর্ব প্রায় শেষ – এমনকি বিচারপতিরা যেসব প্রামাণ্য নথি জমা দিতে বলেছিলেন, মামলাকারীদের পক্ষে সেসবও জমা দেওয়া হয়ে গেছে। কিন্তু, রাজ্য সরকারি আইনজীবীরা জানান, যে এই ব্যাপারে তাঁদের যে নথি জমা দিতে হবে তার বেশ কিছু ‘মিস-প্লেসড’, আর তাই তাঁদের এর পরিপ্রেক্ষিতে অতিরিক্ত সময় চায়।

কিন্তু স্যাটের বিচারপতিরা আগের দিন স্পষ্ট জানিয়ে দেন – আদালতের নির্দেশিকা অনুসারে এই মামলার রায় স্যাটকে আগামী ১১ ই ডিসেম্বরের মধ্যে দিতে হবে। তাই অতিরিক্ত সময় দেওয়া যাবে না। তখন রাজ্য সরকারের আইনজীবীরা জানান – এর পরিপ্রেক্ষিতে তাঁরা পুনরায় হাইকোর্টে যেতে চান।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

স্যাটের বিচারপতিরা জানান, আদালত যদি নির্দেশ দেয়, তাহলে তাঁদের মামলার সময় বাড়াতে বা পুনরায় শুনানি করতে কোনো অসুবিধা নেই। কিন্তু, রাজ্য সরকারকে সেই নির্দেশিকা আনতে হবে ৬ ই ডিসেম্বরের মধ্যে। নাহলে, এতদিন পর্যন্ত যা শুনানি হয়েছে ও নথি জমা পড়েছে – তার পরিপ্রেক্ষিতে ১১ ই ডিসেম্বরের মধ্যে এই মামলার রায়দান হয়ে যাবে।

ফলে, সকলের নজর ছিল – আজ স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুন্যালের দিকে। সেখানে কি রাজ্য সরকারি আইনজীবীরা হাইকোর্ট থেকে স্টে-অর্ডার আনতে পারবেন? এই প্রসঙ্গে আমরা অন্যতম মামলাকারী ও কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজের অন্যতম শীর্ষনেতা সুবীর সাহার সঙ্গে যোগাযোগ করি।

সুবীরবাবু, বর্তমানে সাংগঠনিক কাজে কলকাতার বাইরে আসানসোলে আছেন। তিনি জানান, যেহেতু তিনি আজকের শুনানিতে উপস্থিত ছিলেন না, তাই ঠিক কি ঘটনা ঘটেছে তাঁর জানা নেই। তবে তাঁর কাছে যা খবর আছে – রাজ্য সরকার আজ কোনো আদালতের নির্দেশিকা জমা দিতে পারে নি। আর তাই, স্যাটের বিচারপতিরা রাজ্য সরকারকে আগামী ১৯ শে ডিসেম্বর পর্যন্ত এর জন্য সময় দিয়েছেন।

সুবীরবাবুর বক্তব্য, কোন পরিস্থিতিতে স্যাটের বিচারপতিরা এমন নির্দেশ দিলেন আমার জানা নেই। তবে, এই নির্দেশিকার ফলে আদালত নির্দেশিত ১১ ই ডিসেম্বরের সময়সীমা পেরিয়ে যাচ্ছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের সংগঠনের তরফ থেকে কি পদক্ষেপ নেওয়া হবে – তা কলকাতায় যাওয়ার পর সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক করা হলে জানাতে পারব।

Top
Close
error: Content is protected !!