এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ডিএ নিয়ে আদালতের চাপে রাজ্য সরকার , পুজোর আগেই কি মিলছে বকেয়া

ডিএ নিয়ে আদালতের চাপে রাজ্য সরকার , পুজোর আগেই কি মিলছে বকেয়া

বর্তমানে এ রাজ্য সরকারের সবচেয়ে মাথাব্যাথার কারন সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ।যা নিয়ে কার্যত প্রতিদিন কোর্টের দরজায় ধাক্কা খেতে হচ্ছে রাজ্য সরকারকে।এবারে সেই সরকারি কর্মচারিদের ডিএ নিয়ে মামলার শুনানিতে কোলকাতা হাইকোর্ট সরকারের কাছে জানতে চায়,রাজ্য সরকারের কর্মীদের সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের কর্মীদের ডিএর এত বৈষম্য কেন! সূত্রে খবর,আদালত মনে করে, ‘বৈশম্য মানে তা মৌলিক অধিকার খর্বের সমান।’

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

জানা গেছে,সরকারের তরফে ডিএ সংক্রান্ত সমস্ত নথি খুটিয়ে দেখেছে আদালত।আর তার পরেই হাইকোর্টের বিচারপতি রাজ্যের কাছে জানতে চায়, ‘যাঁরা রাজ্যের বাইরে কাজ করেন তাঁদের এই মহার্ঘভাতা বেশি কেন?তাঁরা কি রাজ্যের ব্লু আইড নয়! কর্মীরা ট্রাইবুনাল থেকেও কোনো সদুত্তর পাননি।কেন এত বৈষম্য কর্মীদের মধ্যে!’

কেন্দ্রীয় সরকার সূত্রে খবর,তাঁদের সপ্তম বেতন কমিশন চালু হওয়ায় বর্তমানে তাঁদের কর্মচারীরা মাসে 2.57 হারে বেশি বেতন পান।ফলে রাজ্যের সঙ্গে কেন্দ্রের কর্মচারীদের বেতনের ফারাক এখন আকাশ পাতাল।এদিকে এই মামলাও চলছে প্রায় এক বছরের বেশি সময় ধরে।

সূত্র মারফত আরও জানা যায়,যে রাজ্যের সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ মেটানোয় স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনালে মামলাও দায়ের হয়।সেখানেই স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়,ডিএ দেওয়া নেওয়া পুরোটাই সরকারের ইচ্ছার ওপর নির্ভরশীল। এরপরই ট্রাইবুনালের এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কোলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলাও হয়।স্যাটের এই নির্দেশকে তুলোধোনা করে এদিন হাইকোর্ট ফের ‘ডিএ পাওয়া যে সরকারি কর্মীদের অধিকার’ তা ফের এদিন তুলে ধরেন কোলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ । আর এই নিয়েই আশার আলো দেখছেন এবার হইতি কোনো ইতিবাচক রায় মিলতে পারে আদালতের আর তার পরেই পুজোর আগে মিলবে বকেয়া ডিএ। 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!