এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে এবার গণপিটুনির শিকার তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার ভাই, জোর চাঞ্চল্য

কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে এবার গণপিটুনির শিকার তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার ভাই, জোর চাঞ্চল্য

“জনতার মার কেওড়াতলা পার” – এই শব্দটা অনেক ক্ষেত্রেই নানা সিনেমার দৌলতে আমরা শুনেছি। কিন্তু কখনও তা পরখ করা হয়ে ওঠেনি। কিন্তু এবার কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে সেই জনতার হাতে বেধড়ক মার খেতে হল তৃণমূল নেতার ভাইকে। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই দুর্নীতিই যে এই খারাপ ফলাফলের পেছনে অনেকাংশে দায়ী, তা আঁচ করতে পেরেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর তারপরেই কেউ কোথাও কোনো কাটমানি খেলে তা তাকেই ফেরত দিতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এহেন হুঁশিয়ারি দেওয়ার পরই দিকে দিকে তৃণমূলের দুর্নীতিগ্রস্ত নেতাদের কাছে টাকা ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে দেখা যায় সাধারণ মানুষদের।

যার ফলে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে পড়ে রাজ্যের শাসক দল। আর এবার কাটমানি খাওয়ার অভিযোগে প্রতারিতদের হাতে পড়ে কার্যত গণপিটুনির শিকার হতে হল কাঁথি পৌরসভার তৃণমূল কাউন্সিলরের জ্যাঠতুতো ভাইকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা যায়, বহু মানুষের কাছ থেকে দীর্ঘদিন ধরে চাকরি দেওয়ার নাম করে কাঁথি পৌরসভা তৃণমূল কাউন্সিলর অতনু গিরির জ্যাঠতুতো ভাই কাঞ্চন গিরি টাকা নিয়েছেন। গত শনিবার এই অভিযোগ তুলেই সেই কাঞ্চন গিরিকে বেধড়ক মার দিয়ে জুতোর মালা গলায় পরিয়ে বেশ কিছুটা পথ ঘোরায় প্রতারিতরা। আর এই গোটা ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

জানা যায়, এদিন ক্যামেরার সামনে রীতিমতো জুতোর মালা পড়ে তিনি বহু মানুষের কাছ থেকে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নিয়েছেন বলে স্বীকার করে নেন সেই তৃণমূল কাউন্সিলরের জ্যাঠতুতো ভাইপো কাঞ্চন গিরি। আর এতেই তীব্র অস্বস্তিতে পড়ে শাসক দল।

এদিন এই প্রসঙ্গে শাসক দলকে কটাক্ষ করে কাঁথি সাংগঠনিক জেলা বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি তপন মাইতি বলেন, “দিদির ভাইয়েরা এত বেশি কাটমানি খেয়েছে যে এখন সবাইকার বদহজম হচ্ছে। যেসব রাঘব বোয়ালরা কাটমানি খেয়েছেন তারা সাবধান হয়ে যান। রাস্তায় বেরোলেই গণপিটুনি, নয়তো জুতোর মালা পড়ে ঘুরতে হবে।”

অন্যদিকে এই ব্যক্তি তাদের কাউন্সিলরের নিজের ভাই নয়, তাই তার সাথে দলের কোনো সম্পর্ক নেই বলে গোটা ঘটনাটি এড়িয়ে গিয়েছেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কনিষ্ক পন্ডা। কিন্তু জেলা তৃণমূলের নেতারা যতই ঘটনাটিকে এড়িয়ে যান না কেন, এই ব্যাপারটি নিয়ে যে তারা বেজায় অস্বস্তিতে, তা প্রায় স্পষ্ট সকলের কাছেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!