এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > উলটপুরাণ! বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ, জোর শোরগোল রাজ্যে

উলটপুরাণ! বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ, জোর শোরগোল রাজ্যে

দলে বেনোজল রুখতে সম্প্রতি দলীয় বৈঠকে বার্তা দিতে দেখা গিয়েছিল বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের। কাটমানি নিয়ে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতারা যাতে বিজেপিতে যোগ না দেন, তার জন্য সকলকে সতর্ক থাকতে বলেছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

কিন্তু যতই তিনি বার্তা দিন, দলে যে ক্রমশ বেনোজল ঢুকছে, তার প্রমাণ পাওয়া গেল এদিনই। জানা যায়, সম্প্রতি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন ব্যারাকপুর পৌরসভা 7 নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অর্পিতা বসু রায়। আর এদিন সেই অর্পিতাদেবী এবং তার স্বামী দেবনাথ রায়ের বিরুদ্ধে ব্যারাকপুরের চন্দনপুকুর বাজার, হরিসভা সহ 7 নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ তুলে পোস্টার পড়তে দেখা গিয়েছে।

যেখানে সেই পোস্টারে বেআইনি নির্মাণ, বেআইনিভাবে জমির প্রমোটিং করিয়ে লক্ষ্য লক্ষ্য টাকা তোলাবাজির অভিযোগ জানানো হয়েছে। আর এই ঘটনাতেই এবার শুরু হয়েছে চাঞ্চল্য।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

কেননা গতকালই দলীয় বৈঠকে বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় তৃণমূলের কোনো দুর্নীতিগ্রস্তকে যাতে দলে নিয়ে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট না হয়, তার ব্যাপারে সকলকে সতর্ক করেছিলেন। আর তার বক্তব্যের 24 ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই ব্যারাকপুর পৌরসভার তৃণমূলের এক কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগদান করায় তার বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ ওঠায় গেরুয়া শিবির প্রবল অস্বস্তিতে পড়ল বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

এদিন এই প্রসঙ্গে ব্যারাকপুরের বিজেপির প্রাক্তন জেলা সভাপতি অহিন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “কেউ কোনো কাটমানি নিয়ে থাকলে সেটা একমাত্র সেই বলতে পারবে। কিন্তু চারদিন আগে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগদান করার পর এমন পোস্টার সত্যিই রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। এর পেছনে তৃণমূলের হাত রয়েছে।”

অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে ব্যারাকপুর পৌরসভার 8 নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর শুভ্রকান্তি বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “এটা আসলে বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল। পুরনো বিজেপি কর্মীরা নতুনদের মেনে নিতে পারছে না। অনেকেই টিকিটের দাবিদার। তাই বিজেপির অনেকেই এই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ তুলেছেন।”

সব মিলিয়ে দলীয় স্তরে দুর্নীতিবাজদের কোনো জায়গা হবে না বলে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা বার্তা দিলেও সদ্য তৃণমূল ত্যাগী ব্যারাকপুরের এক বিজেপি কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে পোস্টার পড়াকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!