এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কাটমানি ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভের মুখে অনুব্রত মণ্ডল, পুরোটা জানলে চমকে যাবেন

কাটমানি ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভের মুখে অনুব্রত মণ্ডল, পুরোটা জানলে চমকে যাবেন

লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে দলে দুর্নীতি বাসা বেধেছে তা আঁচ করতে পেরে কেউ যদি কাটমানি নেয়, তার টাকা তাকেই ফেরত দিতে হবে বলে দলের নেতাকর্মীদের হুশিয়ারি দিতে দেখা গিয়েছিল তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যার পরেই দিকে দিকে দুর্নীতিগ্রস্ত নেতা কর্মীদের বাড়ি ঘেরাও করে টাকা ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে দেখা যায় সাধারণ মানুষদের।

কিন্তু বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে কাটমানি ফেরতের দাবিতে কেউ বিক্ষোভ দেখাবেন! এমনটা আন্দাজ করতে পারেননি কেউই। তবে অবশেষে তাই হল। নিজের খাসতালুকেই এবার কাটমানি নিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন সেই অনুব্রত মণ্ডল। তাকে ঘিরে বেষ্টিত নিরাপত্তারক্ষীর মাঝেও এদিন তার সামনে কেউ বললেন, “আমাদের টাকা ফেরত চাই”, আবার কেউ বললেন, “সততার প্রতীক ভাই, কাটমানি ফেরত চাই, আমাদের টাকা ফেরত চাই।”

কিন্তু যে অনুব্রত মণ্ডল ভোটের আগে প্রায়শই চমক, ধমক দিয়ে সবাইকে দমিয়ে রাখতেন, সেই তিনি চুপচাপ মুখ বুজে সাধারণ মানুষের তরফ থেকে কাটমানি বিক্ষোভে শান্ত থাকলেন! হ্যাঁ, শুনতে আশ্চর্য লাগলেও এটাই সত্যি। এবারের পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রাম থানার বেলাড়ি গ্রামের ঝুলন উৎসবে থিম ছিল কাটমানি ইস্যু। আর এই কাটমানি ফেরত চাওয়ার দৃশ্যে দেখা গেছে যে খোদ অনুব্রত মন্ডলের কাছে গরীব মানুষরা তাদের টাকা ফেরত চাইছেন।

জানা গেছে, এখানকার প্রাচীন এই ঝুলন উৎসবের প্রতিবারই কচিকাঁচারা নানা থিমের মধ্যে দিয়ে সেজে অভিনয় করে। এবারেও তার কোন রূপ ব্যতিক্রম হয়নি। রবিবার রাতে সূর্য সংঘের পক্ষ থেকে থিম হিসেবে কাটমানিকেই বেছে নেওয়া হয়েছিল। যেখানে দেখা যাচ্ছে যে বেলাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র নাদুসনুদুস চেহারার রনি পাল “অনুব্রত মণ্ডল” সেজেছেন।যেখানে অনুব্রত বাবু সাধারণ মানুষকে নিয়ে জনতার দরবার করছেন। আর তার পেছনে সশস্ত্র নিরাপত্তা রক্ষীরা রয়েছে। আর গরিব মানুষেরা হতাশ হয়ে সেই অনুব্রত বাবুর কাছে কাটমানির টাকা ফেরত চাইছেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

এদিকে ঝুলনে এই হিট থিম রীতিমতো মন জয় করেছে সকলের। এমন অভিনব পরিকল্পনা কিভাবে তাদের মাথায় এল! এদিন এই প্রসঙ্গে সূর্য সংঘের কর্মকর্তা সঞ্জয় চট্টোপাধ্যায় বলেন, “মানুষকে আনন্দ দেওয়ার জন্যই এটা করা হয়েছে। যেহেতু এবছর কাটমানি সাম্প্রতিক ইস্যু। তাই এটাকে বেছে নেওয়া হয়েছে। তবে এই থিমের সঙ্গে রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই।” কিন্তু এই ক্লাবের থিম নিয়ে তিনি কি অসন্তুষ্ট?

এদিন এই প্রসঙ্গে তাঁকে জিঞ্জেস করতেই হাসিতে লুটোপুটি খেয়ে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “ওরা দারুন থিম করেছে। ঝুলন উৎসবে সকলে মিলেমিশে আনন্দ করুক, এটাই কামনা করি। তবে আমি বারবার দলীয় কর্মীদের বলেছি, কোনো গরীব মানুষের কাছে টাকা নেওয়া যাবে না। কিন্তু এই ব্যাপারে সাধারণ মানুষের আরও সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।” সব মিলিয়ে বাস্তব না হলেও ঝুলন উৎসবের মধ্যে দিয়ে অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে সেই অনুব্রত মণ্ডলকে নিয়েই কাটমানির বিষয় নিয়ে থিম করায় তীব্র চাঞ্চল্য রাজ্যজুড়ে।

Top
error: Content is protected !!