এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কাটমানির পর এবার শিক্ষিকাকে আপত্তিকর প্রস্তাব দেওয়া নিয়ে কাঠগড়ায় তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা

কাটমানির পর এবার শিক্ষিকাকে আপত্তিকর প্রস্তাব দেওয়া নিয়ে কাঠগড়ায় তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা

প্রথমে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। আর এবার তৃণমূলের বরো চেয়ারম্যান রঞ্জন শীলশর্মার বিরুদ্ধে তার স্কুলের এক শিক্ষিকাকে আপত্তিকর প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ উঠল। যে ঘটনায় এখন তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে শিলিগুড়ি এলাকায়। জানা গেছে, শিলিগুড়ির নেতাজি জিএসএফপি স্কুলের এক শিক্ষিকা মঙ্গলবার ক্লাসে পড়াচ্ছিলেন। তার অভিযোগ, সেই সময়ই স্কুলের অন্য সহকর্মীরা সেই রঞ্জন শীলশর্মার প্রস্তাব তাকে মানবার জন্য বাধ্য করেন।

এমনকি তার ওপর ব্যাপক মানসিক লাঞ্ছনাও করা হয়। আর এরপরই অসুস্থ হয়ে পড়েন সেই শিক্ষিকা। যার জেরে তাকে প্রথমে শিলিগুড়ি হাসপাতাল এবং পরে একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। এদিন এই প্রসঙ্গে সেই শিক্ষিকা বলেন, “রঞ্জনবাবু 2017 সাল থেকে আমাকে আপত্তিকর প্রস্তাব দিতে থাকেন। কিন্তু তাতে কান না দিলে রঞ্জনবাবুর প্ররোচনায় বাকি সহকর্মীরা আমাকে লাঞ্ছনা শুরু করেন। এক ঘরে করে দেওয়া হয় আমাকে। উনি প্রভাবশালী বলে এতদিন ভয় পাচ্ছিলাম, এখন পিঠ দেওয়ালে ঠেকে যাওয়ায় প্রতিবাদ করতে বাধ্য হলাম।” তবে এই গোটা ঘটনার পেছনে শাসকদলের গোষ্ঠী কোন্দলকেই দায়ী করছে একাংশ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অনেকে বলছেন, এই শিক্ষিকা তৃণমূলের অন্য একটি শিক্ষক সংগঠনের সদস্য পদ নেওয়াতেই তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়েছেন সেই রঞ্জন শীলশর্মা। আর তার জেরেই এত গন্ডগোল। এদিকে এই ঘটনায় একটি রিপোর্ট তলব করা হবে বলে জানিয়েছেন শিলিগুড়ি জেলা স্কুল পরিদর্শক বালিকা গোলে। কিন্তু কি বলছেন সেই অভিযুক্ত শিক্ষক রঞ্জন শীলশর্মা! এদিন এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমি এমন কোনো প্রস্তাব দিইনি। বরং ওই শিক্ষিকা স্কুলের পরিবেশ নষ্ট করতে চাইছেন।”

তবে সেই শিক্ষিকার পক্ষ নিয়ে তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষকদের অন্য সংগঠনের নেতা বিভাস চক্রবর্তী বলেন, “শিক্ষিকা অভিযোগ তোলার পরেই তার আচরণ নিয়ে পাল্টা অভিযোগ তোলার কথা মনে হল স্কুলের! আমরা দোষীদের শাস্তি চাই।” এদিকে এই গোটা বিষয়টি নিয়ে জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা মন্ত্রী গৌতম দেব খোঁজ নিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!