এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > রেজ্জাক-পুত্রের পর এবার আরেক হেভিওয়েট-পুত্রের ‘কাটমানি’ কাণ্ডে তীব্র অস্বস্তিতে তৃণমূল

রেজ্জাক-পুত্রের পর এবার আরেক হেভিওয়েট-পুত্রের ‘কাটমানি’ কাণ্ডে তীব্র অস্বস্তিতে তৃণমূল

বাংলায় বিজেপির তীব্র উত্থানের পর তৃণমূল কংগ্রেস নিজের ভুলত্রুটি নিয়ে আলোচনায় বসে সিদ্ধান্তে আসে স্থানীয় স্তরে নেতাদের দুর্নীতি – এই ভরাডুবির অন্যতম বড় কারণ। মুখ্যমন্ত্রীর একের পর এক প্রকল্প যা সাধারণ মানুষকে বড়সড় সুবিধা দিতে পারত, সেখানে তৃণমূল নেতারা মাঝখান থেকে ‘কাটমানি’ নেওয়ায়, সাধারণ মানুষ নাকি যথাযথ পরিষেবা পান নি। আর তারই ক্ষোভ উপচে পড়েছে ভোটবাক্সে।

আর তাই এই ‘কাটমানি’ নিয়ে কড়া অবস্থান নিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাটমানি নিয়ে অভিযোগ জানানোর জন্য নবান্নে বিশেষ সেল খুলেছেন। সেই সেল কতটা কাজ করবে বা সাধারণ মানুষের কাটমানি কতটা ফিরিয়ে দেবে তা পরের কথা। কিন্তু, কাটমানি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর এহেন মন্তব্যের পরেই রাজ্যের কোনায় কোনায় সাধারণ মানুষ কাটমানি নিয়ে ক্রমশ সরব হয়ে উঠছেন। ফলে, চরম অস্বস্তিতে তৃণমূলের একের পর এক হেভিওয়েট নেতা ও তাঁদের পরিবার।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কিছুদিন আগেই, রাজ্যের মন্ত্রী আব্দুর রেজ্জাক মোল্লার পুত্রের বিরুদ্ধে জমা পড়েছিল কাটমানির অভিযোগ। যে অভিযোগের চোটে গোটা রাজ্য-রাজনীতিতে ঝড় উঠেছিল। আর তার রেশ মিটতে না মিটতেই এবার আরেক হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলামের ছেলের বিরুদ্ধে উঠল কাটমানির অভিযোগ। সূত্রের খবর, এবার অভিযোগের তীর ভাঙড়ের ‘একচ্ছত্র অধিপতি’ আরাবুলের ইসলামের ছেলে তথা পোলেরহাট ২ নম্বর পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান হাকিমুল ইসলামের বিরুদ্ধে।

পোলেরহাট পঞ্চায়েতের উড়িয়াপাড়ার বাসিন্দা ভগবতী সর্দার নামে এক অভিযোগকারী কাশীপুর থানায় করা তাঁর লিখিত অভিযোগে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, আগের পঞ্চায়েতের আমলে তিনি সরকারি আবাস যোজনার জন্য আবেদন করলে তা গৃহীত হয় ও তাঁর অ্যাকাউন্টে টাকা চলেও আসে। কিন্তু, এরপরেই সেই টাকার একটি অংশ দাবি করে সরকারি আবাস নির্মাণের সুপারভাইজার শেখ সরাফউদদৌল্লা।

একই সাথে, শেখ সরাফউদদৌল্লা নাকি ভগবতীবাবুকে স্পষ্ট জানান, টাকা না দিলে পরের কিস্তির টাকা দেওয়া হবে না। এর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালে, তৎকালীন পঞ্চায়েত প্রধান হাকিমুল ইসলাম লোকজন নিয়ে এসে হুমকি দিয়ে যান। এই অভিযোগের ভিত্তিতে, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। অন্যদিকে, এই নিয়ে কোনো সরকারি প্রতিক্রিয়া এখনও তৃণমূল কংগ্রেস ও হাকিমুল ইসলাম বা তাঁর পরিবারের তরফে পাওয়া যায় নি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!