এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শিক্ষামন্ত্রীর অপসারিত করা সভাপতিকে আবার দায়িত্ব দিলেন মন্ত্রী, শুরু তীব্র ক্ষোভ

শিক্ষামন্ত্রীর অপসারিত করা সভাপতিকে আবার দায়িত্ব দিলেন মন্ত্রী, শুরু তীব্র ক্ষোভ

কুপন বিতর্কের জেরে যাকে অপসারিত করা হয়েছিল তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির জেলা সভাপতির পদ থেকে তাকে কেন রাজ্যের শাসকদল আগামীদিনে আয়োজিত শিক্ষকদিবসের মূল অনুষ্ঠানের দায়িত্ব দিল? এই প্রশ্নকে ঘিরেই অসন্তোষ দানা বেঁধেছে শিক্ষকদের একাংশের মধ্যে। খোদ শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নির্দেশেই রথিন মল্লিককে তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির জেলা সভাপতি পদ থেকে ছাটাই করা হয়েছিল।

প্রসঙ্গত,২০১৭ সালের ঘটনা। তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে শিক্ষক দিবস পালনের জন্য জেলা বিদ্যালয়ের পরিদর্শকের নাম ব্যবহার করে লাগাতার টাকা তোলা হচ্ছিল বেআইনিভাবে কুপন ছাপিয়ে। মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই এখবর শিক্ষামন্ত্রীর কানে পৌছায়। তখন তিনি নির্দেশ দিয়েছিলেন রথিন মল্লিককে তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সংগঠনের জেলা সভাপতির পদ থেকে হটিয়ে দেওয়ার। তার নির্দেশ পেয়েই ওই শিক্ষক নেতাকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেন দলের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ। সেই ঘটনার পর বছর খানেক কেটে গেলেও জেলা সভাপতি পদে কারোর মনোনয়ন হয়নি তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে। এ প্রসঙ্গে স্বপন বাবু জানান,’শিক্ষক সংগঠনের জেলা সভাপতি ঠিক করে প্রদেশ নেতৃত্ব। তাই একবছর ওই পদ ফাঁকা থাকলেও আমাদের কিছু করার নেই।’

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এবছর আবার মহা সমারোহে টাউনহলে শিক্ষক দিবস পালন করার উদ্যোগ নিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। এর জন্যে শহরের বেশ কিছু জায়গায় তোরণও নির্মান করা হয়েছে। গতকাল ঘনিষ্ঠ সদস্যদের নিয়ে বর্ধমানে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি সভাও করেছেন  বহিষ্কৃত জেলা সভাপতি। শিক্ষকদিবসের মূল অনুষ্ঠানের দায়িত্ব তাকে দিয়েছেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথই। এই খবর স্যোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন ওই শিক্ষক নেতার ঘনিষ্ঠরাই। এ ব্যাপারে রথীনবাবু জানান, শিক্ষকদিবস অনুষ্ঠানের সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব তাকেই দেওয়া হয়েছে। গতকাল এ নিয়ে প্রস্তুতি বৈঠকও করা হয়েছে। অন্যদিকে,মন্ত্রী স্বপনবাবু বক্তব্যে জানিয়েছেন, দলের উদ্যোগেই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। তবে এবারের অনুষ্ঠানে কোনো চাঁদা তোলা হবে না বলেই আশ্বাস দিলেন তিনি।যদিও এই ব্যাপারে এখনো পর্যন্ত মুখ খোলেননি পার্থবাবু। 

 

Top
error: Content is protected !!