এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > সিপিএম ও বিজেপি মিলে বোর্ড গড়া আটকাতেই কি বামপ্রার্থী অপহৃত? জল্পনা চরমে

সিপিএম ও বিজেপি মিলে বোর্ড গড়া আটকাতেই কি বামপ্রার্থী অপহৃত? জল্পনা চরমে

রাজ্যে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের বিজ্ঞপ্তি জারি হতে না হতেই শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে ফের সন্ত্রাসের অভিযোগে সরব বিরোধী দলগুলি। এবারে সিপিএমের জয়ী পঞ্চায়েত সদস্যের স্বামীকে অপহরণের অভিযোগ উঠল শাসকদলের বিরুদ্ধে। স্থানীয় সূত্রের খবর, গত মঙ্গলবার সকালে ওই জয়ী সিপিএম সদস্যার স্বামী সোনারুদ্দিন শেখ অপহরন হলেও এখনও পর্যন্ত তাঁর কোনো হদিস না মেলায় এ দিন নাকাশিপাড়া থানার সামনে একশো জনের মত সিপিএম সমর্থক হাজির হয় বিক্ষোভ দেখান।

এদিকে বোর্ড গঠনের আগেই এই ঘটনায় বিরোধীদের তির্যক মন্তব্য, সবে তো শুরু! বোর্ড গঠনের সময়সীমা যত এগিয়ে আসবে ততই এমন ঘটনা ঘটতে থাকবে। প্রসঙ্গত, পনেরো আসনবিশিষ্ট এই বীরপুর-২ গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূল ৭ টি এবং সিপিএম ও বিজেপি ৪ টি করে আসন পায়। শাসকদলকে ঠেকাতে দুই বিরোধী দল বিজেপি ও সিপিএম জোট বেঁধে এই পঞ্চায়েতে বোর্ড গড়ার মৌখিক সিদ্ধান্ত নেয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

ফলে অভিযোগ, একটি মাত্র আসনের জন্য বোর্ড গড়তে না পারার জন্য ময়দানে নামে তৃণমূল কংগ্রেসও। সিপিএমের অভিযোগ, ওই পঞ্চায়েতে তাঁদের জয়ী প্রার্থী সাবানা আসমিনের স্বামী শেখ সোনারুদ্দিন সকাল সাড়ে ১০ টা নাগাদ যখন স্কুলে যাচ্ছিলেন তখন সেই স্কুলের কাছ থেকে জনাকয়েক দুষ্কৃতী তাঁকে গাড়িতে তুলে নেয়। আর এই ঘটনা জানাজানি হতেই স্থানীয় সিপিএমের নেতৃত্ব থানায় গিয়ে অভিযোগ জানায়।

এ প্রসঙ্গে সিপিএমের নাকাশিপাড়া উত্তর এরিয়া সম্পাদক বসন্ত সরকার সংবাদমাধ্যমকে জানান, “থানা থেকে ওসি বলেছিলেন চার ঘণ্টার মধ্যে সোনারুদ্দিনকে ফিরিয়ে দেবে। কিন্তু সেই সময়সীমা অনেক আগেই পেরিয়েছে। ছাপ্পা ভোটের পর এ বার বোর্ড গড়ার জন্য অপহরণের পন্থাও নিয়েছে ওরা”।

এদিকে অপহৃতের স্ত্রী তথা সিপিএমের জয়ী পঞ্চায়েত সদস্যা সাবানা আসমিন বলেন, “ফোন করে বলা হচ্ছে আমার স্বামীকে ওরা খুন করে ফেলবে। এ রাজ্যে তো দেখছি গণতন্ত্রের অপমৃত্যু ঘটেছে”। এদিকে সিপিএমের করা এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করে নাকাশিপাড়ার বিধায়ক তৃণমূলের কল্লোল খাঁ বলেন, “সিপিএম স্রেফ নাটক করছে। আমাদের লোকজন অপহরণের মতো ঘৃণ্য কাজ করে না”। সব মিলিয়ে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের আগে জেলায় জেলায় শাসক বিরোধী চাপানউতোর তুঙ্গে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!