এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > বর্ধমান-দুর্গাপুর আসনে দ্রুত ভাঙছে বাম ভোট – নিজেদের দিকে টানতে মরিয়া তৃণমূল-বিজেপি দু’পক্ষই

বর্ধমান-দুর্গাপুর আসনে দ্রুত ভাঙছে বাম ভোট – নিজেদের দিকে টানতে মরিয়া তৃণমূল-বিজেপি দু’পক্ষই

প্রায় 5 বছর আগে বর্ধমান- দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে সিপিএমের দখলে একটা বিরাট মাপের ভোটব্যাঙ্ক থাকলেও যতদিন এগোচ্ছে ততই যেন এই কেন্দ্রে অপ্রাসঙ্গিক হয়ে পড়ছে বামেরা। আর তাই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের মুখে এই বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বামেদের নেতাকর্মীদের মনে একটাই প্রশ্ন, প্রার্থী দিলেও আদৌ কি তারা সেইভাবে নিজেদের ভোটব্যাঙ্ক ধরে রাখতে পারবে!

কেননা বর্তমানে এই কেন্দ্রে মূল লড়াই হতে চলেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল বনাম বিরোধী দল বিজেপির মধ্যে। ফলে সেইভাবে বামেদের খুব একটা ভোটব্যাঙ্ক থাকবে না বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ। কেননা তৃণমূল এবং বিজেপি চেষ্টা করছে বামেদের দখলে থাকা ভোটব্যাঙ্কগুলো নিজেদের দখলে নিয়ে আসার। ফলে সেই দিকটায় যদি এই দুই দলই সাফল্য পায়, তাহলে অনেকটাই ব্যাকফুটে পড়তে পারে কাস্তে হাতুড়ি শিবির বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

প্রসঙ্গত, গত 2014 সালে বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের মমতাজ সংঘমিত্রা 5 লক্ষ 54 হাজার 521 টি ভোট, অন্যদিকে সিপিএমের সাইদুল হক 4 লক্ষ 47 হাজার 190 টি এবং বিজেপির দেবশ্রী চৌধুরী 2 লক্ষ 37 হাজার 205 টি ভোট পেয়েছিলেন।

জানা গেছে, গতবার এই বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে প্রায় বেশিরভাগ বিধানসভাতেই তৃণমূলেই পরেই স্থান ছিল বামেদের। কিন্তু রাজ্যে বামেদের সংগঠন ক্ষয়িষ্ণু হয়ে যাওয়ার সাথে সাথেই বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে বামেদের অনেক কর্মী সমর্থক তৃণমূল এবং বিজেপিতে চলে গিয়েছে। ফলে তাদের ভোটব্যাংকেও এখন প্রবল ধ্বস নামার আশঙ্কায় রয়েছেন বাম শিবিরের অনেক নিচু তলার কর্মী সমর্থকরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে কিছুদিন আগে কার্জন গেট চত্বরে ঘোষ ও গাভী কল্যাণ সমিতির সভাপতি বাপ্পাদিত্য ঘোষ অনশন করার সময় তার অনশন ভাঙাতে এসেছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। আর তারপর থেকেই সেই বাপ্পাদিত্য বাবুর সঙ্গে বিজেপির ঘনিষ্ঠতা বাড়লেও বিজেপি আর তাদের কোনোরুপ যোগাযোগ রাখে এই অভিযোগ করে সম্প্রতি সেই বাপ্পাদিত্য ঘোষ বর্ধমান জেলা তৃণমূলের কার্যালয়ে উজ্জল প্রামাণিকের সাথে একটি বৈঠক করেছেন বলে জানা গেছে। ফলে সিপিএম থেকে বিজেপিতে যাওয়া সাংগঠনিক কার্যকর্তাদেরও এবার তৃণমূল নেতাদের দখলে নিয়ে নেওয়ায় বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে অনেকটাই অ্যাডভান্টেজ রয়েছে ঘাসফুল শিবিরের বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

কেননা এখনও পর্যন্ত এখানে বিজেপি তাদের প্রার্থী ঘোষণা করতে পারেনি। ফলে গেরুয়া শিবিরও অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। আর এখানেই আকাশের প্রশ্ন যে, বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে গত লোকসভা নির্বাচনের সময় বামেরা দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও তারা কি এবার আর সেই জায়গা দখল করতে পারবে!

এদিন এই প্রসঙ্গে এই কেন্দ্রের সিপিআইএম প্রার্থী আভাস রায় চৌধুরী বলেন, “ভোটের অংক কষে আমরা লড়াইয়ে নামিনি। সাধারন মানুষের সঙ্গে কথাবার্তা বলছি। এই কেন্দ্র থেকে এবার আমাদের জয় নিশ্চিত।” অন্যদিকে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী এই কেন্দ্রের বিদায়ী তৃণমূল সাংসদ তথা তৃণমূল প্রার্থী মমতাজ সংঘমিত্রা এবং বিজেপির বর্তমান সাংগঠনিক জেলার সভাপতি সন্দীপ নন্দী। সব মিলিয়ে ভোটের অংকের হিসেব-নিকেশে জমজমাট বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের লড়াই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!