এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দীর্ঘদিন জেলে থাকার পর অবশেষে জামিন পেলেন বহুচর্চিত বামনেতা

দীর্ঘদিন জেলে থাকার পর অবশেষে জামিন পেলেন বহুচর্চিত বামনেতা

Priyo Bandhu Media


পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে অশান্তি হয়। কোথাও শাসক দলের সঙ্গে বামেদের কোথাও শাসকদলের সঙ্গে বিজেপির কোথায় আবার শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। মনোনয়ন জমা দেওয়া থেকে শুরু করে বোর্ড গঠন পর্যন্ত পুরোনির্বাচন প্রক্রিয়াটা চলেছে উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে।

গোটা রাজ্যের মত উত্তেজনা ছড়ায় তারাবাড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতেও। এই পঞ্চায়েতের অধীনস্থ আমডাঙার হত্যাকাণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে পুরো ১০৭ দিন জেলে হেফাজতে ছিলেন সিপিএম নেতা আহমেদ আলী খান। অবশেষে বৃহস্পতিবার বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি ও বিচারপতি রবিকৃষন কাপুরের ডিভিশন বেঞ্চ তার জামিন আবেদন মঞ্জুর করে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে তারাবাড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূল কংগ্রেস ৯টি ও সিপিএম ১০ টি আসন পায়।সিপিএম এর তরফ থেকে ২৯ আগস্ট বোর্ড গঠনের দিন হাঙ্গামার আশঙ্কায় হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয়। সিপিএমের সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে বোর্ড গঠনের আগের দিন ২৮ আগস্ট বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী এলাকায় কড়া পুলিশি নজরদারির ব্যবস্থা করার আদেশ দেন। পাশাপাশি জয়ী প্রার্থীদের নিরাপত্তা দেওয়ার নির্দেশও প্রশাসনকে দেন তিনি।

কিন্তু আদালতে আহমেদ আলী খানের আইনজীবী বিকাশ ভট্টাচার্য ও উদয় শঙ্কর চট্টোপাধ্যায় জানান, হাইকোর্টের নির্দেশ সত্ত্বেও ২৮ আগস্ট বিকেল থেকেই এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি চলে। রাত্রি সাড়ে নটার মধ্যে একজন সিপিএম সমর্থক সহ ৩ জন খুন হন। তারপর হত্যাকাণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। কিন্তু তাৎপর্যপূর্ণভাবে সেই এফ আর মৃত ব্যক্তির পরিবারের কেউ নয় বরঞ্চ অন্য একজন করেন।

এদিকে পুলিশ জায়গায় ঘটা তিনটি ঘটনারই একজন প্রত্যক্ষদর্শী হাজির করে। যিনি সাক্ষী দেন, প্রতিটি হত্যাকাণ্ডের সময়ই নাকি তিনি মধ্যমগ্রামের বাসিন্দা আহমেদ আলীকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকতে দেখেছেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে পুলিশ এখনও পর্যন্ত মৃত ব্যক্তির বাবা আসিবুদ্দিন এর কোন বয়ান নেয়নি এমনটাই অভিযোগ। দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ পুলিশকে মৃতের বাবার বয়ান নেওয়ার নির্দেশ দেন। পাশাপাশি সমস্ত কিছু খতিয়ে দেখে অভিযুক্তকে জামিনের নির্দেশ দেন। লোকসভা ভোটের আগে আদালতের নির্দেশে স্বস্তির হাওয়া বামমহলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!