এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টা সস্ত্রীক সিপিএম নেতাকে, অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে

জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টা সস্ত্রীক সিপিএম নেতাকে, অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে

জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টা সস্ত্রীক সিপিএম নেতাকে, অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার নামখানার কাকদ্বীপে ভোটের ঠিক আগের রাতেই ঘটে গেল এমনই এক মর্মান্তিক ঘটনা। সিপিএম নেতা দেবু দাস ও তাঁর স্ত্রী ঊষা দাসকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারলো তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা, এমনই অভিযোগ তুলেছে সিপিএম নেতৃত্ব। দেবু দাস ছিলেন একজন সক্রিয় সিপিএম নেতা। মৃতের পরিবারের অভিযোগ অনুযায়ী, এদিন রাত ১ তা নাগাদ যখন দেবু দাস ও তাঁর স্ত্রী ঘুমাচ্ছিলেন সেই সময় কয়েকজন তৃণমূলের দুষ্কৃতী বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় এবং তাঁরা ঘুমন্ত অবস্থায় জীবন্ত দগ্ধ হন। ঘটনার জেরে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য ছড়ায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

সিপিএম জেলা সম্পাদক শমীক লাহিড়ী নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। তাঁর অভিযোগ অনুযায়ী, “সকাল থেকেই তৃণমূল নেতা অমিত মণ্ডল এবং তার সহকারী শিবপ্রসাদ মণ্ডল, চন্দন গিরি, গোকুল জানা-সহ বেশ কয়েকজন দেবু দাস এবং তাঁর স্ত্রীকে সিপিএম করার জন্য হুমকি দিচ্ছিলেন। সেই হুমকি সত্ত্বেও সিপিএম না ছাড়াতেই বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দু’জনকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে।” এদিন পুলিশ দেহ উদ্ধার করতে গেলে তাদের বাধার মুখে পড়তে হয় কারণ স্থানীয় বাসিন্দারা এবং মৃত দেবু দাসের ছেলে এদিন দেহ আটকে বিক্ষোভ দেখায় বলে জানা গেছে। মৃত সিপিএম নেতার ছেলের অভিযযোগ অনুযায়ী জানা গেছে বেশ কিছুদিন ধরেই তার বাবা এবং মাকে তৃণমূলে ভোট দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছিলো। যদিও এই অভিযোগ স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করে এর পক্ষে যুক্তি দিয়েছে, শর্ট সার্কিটের কারণে বাড়িতে আগুন লেগে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!