এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > তৃণমূলের হামলা প্রতিহত করতে আরও সঙ্ঘবদ্ধ হচ্ছে বাম-কংগ্রেস জোট, উত্তপ্ত উত্তরবঙ্গ

তৃণমূলের হামলা প্রতিহত করতে আরও সঙ্ঘবদ্ধ হচ্ছে বাম-কংগ্রেস জোট, উত্তপ্ত উত্তরবঙ্গ

বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় থেকেই বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে উত্তর দিনাজপুরের চোপড়ার শাসক-বিরোধীর সংঘর্ষ লেগেই আছে। কিন্তু নির্বাচন শেষ হয়ে গেলেও বাম- কংগ্রেস জোটের কর্মী-সমর্থকদের সাথে শাসকদলের লড়াই যেন এই এলাকায় থামছে না কিছুতেই।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত রবিবারই এই চোপড়ার লক্ষ্মীপুরে তৃণমূল এবং কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনায় খুন হতে হয় এক কংগ্রেস কর্মীকে। আর এরপরই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা এলাকা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘিরনিগাওতে পুলিশি টহলদাড়ির পাশাপাশি 6 তৃণমূল কর্মী এবং 1 কংগ্রেস কর্মীকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। তবে তাদের কর্মীকে মিথ্যে ভাবে ফাঁসানো হচ্ছে বলে এ দিন দাবি করেন চোপড়ার তৃণমূল বিধায়ক হামিদুর রহমান।

অন্যদিকে এই খুনের ঘটনায় তৃণমূলই জড়িত বলে পাল্টা সরব হয়েছেন লক্ষীপুর অঞ্চলের কংগ্রেস সভাপতি সইদুল ইসলাম। তবে রবিবারের এই রাজনৈতিক কর্মী খুনের ঘটনায় সোমবার কার্যত বন্ধের চেহারা নিয়েছিল গোটা লক্ষ্মীপুর বাজার। আর এই থমথমে আতঙ্কের পরিবেশের মধ্যেও ফের সোমবার সন্ধ্যায় উত্তপ্ত হয়ে উঠলো সেই চোপড়ার ঘিরনিগাও পঞ্চায়েতের ধনীরহাট এলাকা।

সূত্রের খবর, এদিন সন্ধ্যায় স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা কয়েকজন মিলে বাজারে চা খেতে গেলে বাম-কংগ্রেস জোটৈর কর্মীরা তাদের যেতে বাধা দেয়। আর এতেই দু’পক্ষের মধ্যে তীব্র বচসা ও সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। জানা গেছে, এই সংঘর্ষের ঘটনায় ইতিমধ্যেই দুজনকে দলুয়া ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করানোর পাশাপাশি আশঙ্কাজনক অবস্থায় এক ব্যাক্তিকে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জল্পনা বাড়িয়ে সিআইডিকে বড়সড় অস্বস্তিতে ফেলে দিল দাড়িভিটের মৃতদের পরিবার
এদিন এই সংঘর্ষের ঘটনায় জোট কর্মীদের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে স্থানীয় তৃণমূল নেতা তথা গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য হালিমউদ্দিন বলেন, “আমাদের কর্মীরা বাজারে গেলে তাদের বাধা দেওয়ার পাশাপাশি হামলা চালায় এই জোট কর্মীরা।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা শাসকদলের বিরুদ্ধেই তোপ দেগেছেন ঘিরনিগাও অঞ্চলের কংগ্রেস সভাপতি তথা জোটের কনভেনার মহম্মদ মসিরুদ্দিন। সব মিলিয়ে শাসক-বিরোধী সংঘর্ষছ এখন প্রবল রাজনৈতিক উত্তাপে ফুটছে উত্তর দিনাজপুরের চোপড়ার বিস্তীর্ণ এলাকা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!