এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে এবার রাত জেগে আন্দোলন বামফন্টের মহিলা মোর্চার

নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে এবার রাত জেগে আন্দোলন বামফন্টের মহিলা মোর্চার

2011 য় ক্ষমতা হারানোর পর থেকেই সেভাবে আর কোনো প্রতিবাদ আন্দোলনে সংগঠিত হতে দেখা যায়নি বাম নেতাদের। আর যাও বা দেখা গেছে তা নৈবঃ নৈবঃ চঃ। রাজনৈতিক ট্র্যাডিশন অনুযায়ী এ রাজ্যে যে কোনো প্রতিবাদে সংগঠন হোক বা রাজনৈতিক দল সকলেই মধ্যাহ্নের সময়টিকেই বেছে নেয়। কিন্তু কদিন আগে রাজ্যের তৃনমূল সরকারের বিরুদ্ধে বাম নেতা কর্মীরা রাত জেগে ধর্মতলার বুকে প্রতিবাদ জানিয়েছেলেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আনেকে বামেদের এই অভিনব প্রতিবাদ স্বাগতও জানিয়েছিলেন। আর তাই জনসাধারনের মনে আরও জায়গা করতে মরিয়া বামফ্রন্ট তাদের বড় শরিক সিপিএমের মহিলা সংগঠনকে তৃনমূলের বিরুদ্ধে লাজ্যের নারী নির্যাতন ইস্যুতে পথে নামাতে চলেছে। জানা গেছে, আগামী 3-4 জুলাই সেই ধর্মতলার লেলিন মুর্তির পাদদেশে গোটা রাত জুড়ে তৃনমূলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদৈ সোচ্চার হবেন সিপিএমের মহিলা সংগঠনের কর্মী ও নেতৃত্বরা। সংগঠনের তরফে দাবি, এর আগে গোটা দিন ও রাত জুড়ে বামফ্রন্ট কর্মসূচী নিলেও রাতের দিকে সেভাবে কোনো মহিলাকেই দেখা যায়নি। এবারে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত প্রায় 10 হাজার মহিলা কর্মী সমর্থকদের নিয়ে সেখানে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখিয়ে রাত জাগবেন তাঁরা। কিন্তু হঠাৎ এই আন্দোলনের কারন সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে শনিবার সংগঠনের তরফে এক সাংবাদিক বৈঠকে কনীনিকা ঘোষ, অঞ্জু কর, রেখা গোস্বামী, রুপা বাগচীর মত নেত্রীরা বলেন, রাজ্যে দিনের পর দিন মহিলাদের আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা বাড়ছে। মহিলাদের অসম্মান করার দিক থেকে গোটা দেশে শীর্ষে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ।” সদ্য সমাপ্ত পঞ্চায়েতে যেভাবে বিভিন্ন জায়গায় মহিলাদের অপমানিত করার অভিযোগ সামনে এসেছে এদিন সেই ব্যাপারে মুখ খুলে এই প্রতিবাদ আন্দোলনের কথা বলেন তারা। সূত্রের খবর, তৃনমূলের বিরুদ্ধে সিপিএমের মহিলা সংগঠনের এই রাতভর কর্মসূচীর উদ্বোধন করবেন চলচ্চিত্র পরিচালক তরুন মজুমদার। এমনকী এখানে বক্তা হিসেবে দেখা যাবে বৃন্দা কারাটের মত নেত্রীকেও। তবে দুদিন ব্যাপী এই অবস্থান শেষে 4 জুলাই ধর্মতলা থেকে রানি রাসমনি পর্যন্ত একটি বিশাল মিছিল করার কথাও রয়েছে তাঁদের। সব মিলিয়ে নিজেদের ক্ষয়িষ্ণু সংগঠনকে চাঙ্গা করতে সিপিএমের মহিলা সংগঠনের এই পদক্ষেপ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!