এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বাম বা কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে তৃণমূলকে আটকানোর বিজেপির প্রচেষ্টাকে তীব্র আক্রমন শিক্ষামন্ত্রীর

বাম বা কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে তৃণমূলকে আটকানোর বিজেপির প্রচেষ্টাকে তীব্র আক্রমন শিক্ষামন্ত্রীর

রাজ্যে তলায় তলায় সব বিরোধীদলেরা এক হয়ে তৃনমূলের বিরুদ্ধে লড়ছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই এই অভিযোগ করে আসছে শাসকদল। সদ্য পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর শাসকের সেই অভিযোগকে সত্যি করে একাধিক জেলায় পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনে হাতে হাত রাখতে দেখা গেছে বাম, কংগ্রেস এবং বিজেপিকে।

দক্ষিনের পূর্ব মেদিনীপুর হোক কিংবা উত্তরের কোচবিহার জেলায় জেলায় অনেক পঞ্চায়েতেই শাসকদল তৃনমূলকে সরিয়ে জোটবদ্ধ হয়ে তা দখল করে বাম এবং বিজেপি। অনেক জায়গায় কংগ্রেসের সাথেও বিজেপিকে একসাথে চলতে দেখা যাচ্ছে। যা নিয়ে তীব্র জল্পনা তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

কিন্তু সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে যাদের সাথে এত শত্রুতা সেই তাঁদের সাথেই একজোট হয়ে পঞ্চায়েত দখল কেন! শুধুই কি ক্ষমতা ভোগের জন্য! তাহলে কি রাজনীতিতে নীতির কোনো বালাই থাকবে না? এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “যেসব পঞ্চায়েত ত্রিশঙ্কু, সেখানে শাসক বিরোধী সবদল একজোট হয়ে বোর্ড গড়তে পারে। সেখানে সিপিএম বা কংগ্রেস এলে আপত্তি নেই।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রব্লেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর বিজেপির রাজ্য সভাপতির এই কথাতেই হাতে নতুন অস্ত্র পেল তৃনমূল কংগ্রেস। বেশ কদিন আগেই রাজ্যে পঞ্চায়েত নিয়ে এক মামলায় বাম, কংগ্রেস ও বিজেপি সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ায়তিন দলকেই “জগাই-মাধাই-বিদাই” বলে কটাক্ষ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার রাজ্যের পঞ্চায়েতে তৃনমূলকে ঠেকাতে তিন বিরোধীদলের এই অশুভ জোট প্রসঙ্গে তৃনমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন,”বাম ও কংগ্রেসের রাজনৈতিক দেউলিয়াপনা এই বাংলার মানুষ আগেও দেখেছে। এতদিন আড়ালে ছিল এবার বিজেপির সাথে তাঁদের জোট প্রকাশ্যে এসেছে।”  সব মিলিয়ে শাসকের রোশানলে এবার রাজ্যের তিন বিরোধী দল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!