এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বামফ্রন্টের ডাকা বনধ নিয়ে নিজের প্রতিক্রিয়ায় ‘বেফাঁস’ মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর

বামফ্রন্টের ডাকা বনধ নিয়ে নিজের প্রতিক্রিয়ায় ‘বেফাঁস’ মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর

আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষ্যে রাজ্যজুড়ে মনোনয়ন ঘিরে অশান্তির প্রতিবাদে আগামী শুক্রবার  ৬ ঘণ্টার বাংলা বনধের ডাক দিল সিপিএম। বুধবার সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু  দলীয় এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এই ঘোষণার অল্প সময় পরেই নবান্ন থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদমাধ্যমকে বললেন,”বনধ হবে না।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

গাড়ি চলবে। সব কিছু সচল থাকবে। ” এই বিষয়ে সিপিএমকে আক্রমন করেও মুখ্যমন্ত্রী বললেন,”বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছে সিপিএম।” উল্লেখ্য, সিপিএম বনধ ডেকেছে সকাল ছ’টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, ওই দিন সিবিএসই পরীক্ষা ও চৈত্র সেলের বাজার নষ্ট না করতেই কৌশলগত ভাবে বনধ ডেকেছে সিপিএম। শনি, রবি ছুটির আগে ছ’ঘণ্টার বনধের প্রভাব কার্যত অফিস কাছারির উপরেই পড়বে। এদিন সংবাদমাধ্যমকে বলা মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের সিপিএমের প্রতি সমালোচনা থাকলেও বেশিরভাগ বক্তব্যই ছিলো বিজেপি বিরোধী। এতকিছুর মধ্যেও সাংবাদিকদের করা প্রশ্ন বনধের দিনে কী করবেন সরকারি কর্মীরা? এর  জবাবে মুখ্যমন্ত্রী ঘটনার ধারাবাহিকতার প্রতি একটু নিয়ন্ত্রন হারিয়ে বললেের, ”এমনিতেই সবাই ১১টা-১২টার সময়ে অফিসে আসে। সুতরাং বনধ হবে না। অফিস খোলা থাকবে।” রাজনৈতিক মহল অবশ্য মনে করছেন বনধ ব্যর্থ করার চেষ্টা করলেও রাজ্য সরকার সরকারী কর্মচারীদের বনধের সময় শেষ হওয়ার পরে অফিসে যাওয়ার সুযোগ করে দিলেন এদিন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। এবং স্বহস্তে আঁকলেন রাজ্যের কর্ম সংস্কৃতির বাস্তব চিত্র।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!