এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > গরুর পর এবার হিন্দুদের ‘মাতা’ হতে চলেছেন ছাগল? দুই বিজেপি নেতার তুমুল বিতর্ক

গরুর পর এবার হিন্দুদের ‘মাতা’ হতে চলেছেন ছাগল? দুই বিজেপি নেতার তুমুল বিতর্ক

শুধু মুখোমুখি নয়  একজনের মত প্রকাশের পরে তাতে প্রতিক্রিয়া পালটা প্রতিক্রিয়ার মাধ্যমে লড়াইটা জমে ওঠে সোস্যাল মিডিয়াতেও। এবার সোস্যাল মিডিয়ায় বাক যুদ্ধ হতে দেখা গেলো বিজেপি দলেরই দুই প্রভাবশালী নেতার মধ্যে । একজন হলেন  নেতাজি পরিবারের সদস্য তথা বিজেপি নেতা চন্দ্র বোস অপর জন ত্রিপুরা রাজ্যপাল তথাগত রায়।

যখন চন্দ্র বোস ট্যুইটে লিখছেন মহাত্মা গান্ধী ছাগলকে মাতা বলে মনে করতেন এবং হিন্দুদের ছাগলের মাংস খেতে বারণ করেছিলেন। তখন তথাগত রায় এই কথার বিরোধীতা করে লিখছেন যে,  মহাত্মা গান্ধী কখনই ছাগলকে মাতা বলে মন্তব্য করেননি। প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সহসভাপতি চন্দ্র বোস। তিনি সাম্প্রতিক সময়ে বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে গোরক্ষদের আলোচনার সমালোচনা করে দলের অন্দরেই বিতর্কিত মানুষ হয়ে উঠেছিলেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

এবার তিনি ছাগল প্রসঙ্গে মন্তব্য করে আবারও সমালোচনার কেন্দ্রে এসে পড়লেন। নিজের লেখা ট্যুইটে  চন্দ্র বোস জানাচ্ছেন, গান্ধীজি কলকাতায় আসলে তাঁর ঠাকুরদা শরত্‍ বোসের ১ নম্বর উডবান পার্কের বাড়িতে থাকতেন এবং ছাগলের দুধের জন্য বলতেন। সেই কারণে ঐ বাড়িতে দুটি ছাগল কিনে রাখা হয়েছিল। একই সাথে ঐ পোষ্টে বিজেপি নেতা চন্দ্র বোস গান্ধীজিকে হিন্দুদের রক্ষা কর্তা বলে অ্যাখ্যায়িত করে বলেছেন, ছাগলকে মাতা হিসেবে মনে করেই গান্ধীজি ছাগলের দুধ খেতেন।সেইজন্য হিন্দুদের ছাগলের মাংস খাওয়া বন্ধ করা উচিত।

এই ট্যুইটের কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ত্রিপুরার রাজ্যপাল তথা বিজেপি নেতা তথাগত রায় নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে লিখলেন,  গান্ধীজি কিংবা শরত্‍ বোস কেউই কোনও সময় ছাগলকে মাতা বলে উল্লেখ করননি। গান্ধীজি নিজেও কোনও সময় দাবি করেননি তিনি হিন্দুদের রক্ষাকর্তা। তথাগত রায়ের মতে , হিন্দুরা ছাগলকে নয় গরুকেই মাতা হিসেবে মনে করেন। তাই গোমাতা শব্দটির প্রচলন হয়েছে। একই সাথে তিনি চন্দ্র বোসকে এই ধরনের কথা বার্তা না বলতে অনুরোধ করেন। এরপরেও এই ট্যুইট যুদ্ধ কয়েক ঘন্টা ধরে চলতে থাকে। চন্দ্র বোসের করা মন্তব্যের বিরোধী করে তথাগত রায় লেখেন যে, গান্ধীজীর অত্যন্ত প্রিয়পাত্র জওহরলাল নেহরু মাংসের ভক্ত ছিলেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!