এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আদালতের নির্দেশে বড়সড় ধাক্কা বিজেপি সাংসদের, জেনে নিন

আদালতের নির্দেশে বড়সড় ধাক্কা বিজেপি সাংসদের, জেনে নিন

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখালেই সেই সমস্ত নেতাকর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে দেখা গেছে বিরোধীদলকে। তবে শাসকদলের পক্ষ থেকে অবশ্য সেই সমস্ত অভিযোগকে বরাবরই নস্যাৎ করে দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু লোকসভা নির্বাচনের আগেই তৃণমূলের সৌমিত্র খাঁ ঘাসফুল শিবির ছেড়ে পদ্ম শিবিরে নাম লেখান। যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে ব্যাপক আলোড়নের সৃষ্টি হয়। এমনকি এই সৌমিত্র খাঁকেই বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রার্থী করে দেয়।

তবে প্রার্থী হয়েও সেইমত নিজের লোকসভা কেন্দ্রে প্রচার করতে পারেনি সৌমিত্রবাবু। যার কারণ হিসেবে তার বিরুদ্ধে শাসকদলের পক্ষ থেকে মামলার জেরে সেই এলাকায় প্রবেশ না করতে পারার মত ঘটনা ঘটে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

মূলত সৌমিত্র খার বিরুদ্ধে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নাম করে প্রতারণার অভিযোগে কলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলা করা হয়। আর তার জেরেই তিনি বাঁকুড়ায় ঢুকতে পারবেন না বলে হাইকোর্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়। যা নিয়ে কিছুটা হলেও লোকসভা ভোটের প্রচার তিনি ঠিক কি কিভাবে করবেন তা নিয়ে চিন্তায় পড়েন সৌমিত্র খাঁ।

পরে অবশ্য তার স্ত্রী সুজাতা খা স্বামীর হয়ে প্রচার করেন। আর শেষ পর্যন্ত এই বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের জয়লাভ করেন বিজেপির সৌমিত্রবাবু। কিন্তু লোকসভা ভোটের পর্ব চুকে গেলেও এখনও তিনি বিষ্ণুপুরে ঢুকতে পারবেন না বলে জানিয়ে দিল আদালত।

সূত্রের খবর, বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁকে নিজের সংসদ এলাকায় প্রবেশ করার জন্য আরও ছয় সপ্তাহ অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ জারি করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। যার জেরে ফের তার বিষ্ণুপুরে ঢোকার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়ে গেল।

তবে সাংসদের বিরুদ্ধে ঠিক কবে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ তুলে নিয়ে তাকে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে ঢোকার ব্যাপারে সার্টিফিকেট দেয় আদালত, এখন সেই দিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!