এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাম-কংগ্রেস-বিজেপি হাত শক্ত করার চেষ্টা করলেও, বাংলায় আসন পাওয়া দূরের কথা, জামানত খোয়া যাবে বিজেপির: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

বাম-কংগ্রেস-বিজেপি হাত শক্ত করার চেষ্টা করলেও, বাংলায় আসন পাওয়া দূরের কথা, জামানত খোয়া যাবে বিজেপির: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

লোকসভা নির্বাচনের দিন যত এগিয়ে আসছে, ততই রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল বনাম বিরোধী দল বিজেপির মধ্যে রাজনৈতিক উত্তাপের পারদ চড়তে শুরু করেছে। আর এরই মধ্যে এবার রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড তথা যুব তৃনমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি তথা আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ডায়মন্ড হারবার লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রের অন্তর্গত মেটিয়াবুরুজ বিধানসভা কর্মীদের নিয়ে এক সভায় রাজ্যের বিরোধী দল বাম, কংগ্রেস ও বিজেপিকে আক্রমণ করে রাজনৈতিক তরজাকে আরও বাড়িয়ে দিলেন।

সূত্রের খবর, এদিন এই সভা থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হয়ে কংগ্রেস এবং বামফ্রন্ট বিজেপির সুবিধা করে দিতে চাইছে। রাজ্যে যারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরোধিতা করছে তারা বিজেপির হাতই শক্ত করছে। তবে এসব করে বিজেপি এরাজ্যে খাতাই খুলতে পারবে না।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ডায়মন্ডহারবার কেন্দ্রে বামফ্রন্টের প্রার্থী সংখ্যালঘু বলে পরিচিত চিকিৎসক ফুয়াদ হালিমকেও এদিনের সভা থেকে একহাত নেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “সিপিএম ধর্ম বিশ্বাস করে না। ভোট এলেই সংখ্যালঘু মানুষের জন্য বড় বড় কথা বলে আর একজন সংখ্যালঘু প্রার্থীকে দাড় করিয়ে দেয়। আর অন্যদিকে বিজেপি হিন্দু মুসলমান করে। আজকে সারাদেশ বিপদে রয়েছে। আর এই বিপদ থেকে মুক্তি পেতে হলে সকলকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত আরও শক্ত করতে হবে।”

অন্যদিকে এদিনের এই সভাকে জনসভা হিসেবেও আখ্যা দেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের অনেক আসনেই ত্রিমুখী লড়াই হওয়ার কারণেই সেই ভোট কাটাকাটিতে যাতে বিরোধীরা বেরিয়ে না যায় তার জন্যই এদিনের এই সভা থেকে সেই সমস্ত বিরোধীদলকে একযোগে কটাক্ষ করে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসকে জেতানোর আহ্বান জানিয়ে মানুষের কাছে নিজেদের দলকে জনদরদি হিসেবে তুলে ধরতে মরিয়া চেষ্টা চালালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে অভিষেক বাবুর এই চেষ্টা কতটা সার্থক হয় তা বোঝা যাবে আগামী 23 মে নির্বাচনের ফলাফলের পরই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!