এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কংগ্রেসকে জোটে না নিলে বিজেপির কত সুবিধা মমতাদের বোঝাতে ব্যস্ত শীর্ষনেতৃত্বরা

কংগ্রেসকে জোটে না নিলে বিজেপির কত সুবিধা মমতাদের বোঝাতে ব্যস্ত শীর্ষনেতৃত্বরা

এদিন কর্নাটকে কুমারস্বামীর মুখ্যমন্ত্রীর পদে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বিজেপিবিরোধী ফ্রন্টগঠনের দাবীতে বেশ টানটান উত্তেজনা ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে। জানা গেছে সেখানে কংগ্রেসকে একরকম বাদ দিয়েই মমত বন্দ্যোপাধ্যায় এবং চন্দ্রবাবু নাইডুর আঞ্চলিক বিজেপি বিরোধী জোটকেই বেশু গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। অন্যদিকে সামনেই ২৮ মে উওরপ্রদেশের কৈরানায় উপনির্বাচন। সেই প্রেক্ষিতে আবার এককাট্টা হতে দেখা গেলো কংগ্রেস,এসপি,বিএসপি,আইএনএলডিকে।

এরকম পরিস্থিতিতে এদিন প্রতিবাদে আওয়াজ তুললেন কংগ্রেস দলনেতা অশোক গহলৌত। জানালেন,”কংগ্রেসকে বাদ দিয়ে বা অবজ্ঞা করে যাঁরা মোদী-বিরোধীতা করছেন,শীঘ্রই তাঁরা বুঝবেন এতে আসলে বিজেপিরই লাভ হবে।” তবে কোনো নেতার নাম প্রকাশ না করেই তিনি অভিযোগে সরব হলেন। সামনেই লোকসভা ভোট। সেইজন্যেই মানুষের দাবীকে গুরুত্ব দিয়ে একত্রিত হতে হবে বিজেপিবিরোধীদের।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কর্নাটকের বিধানসভা ভোট বা কৈরানা উপনির্বাচনের মতো পরিস্থিতি যেন ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে না নয়। তবে এখনই তার মন্তব্যের জেরে বিতর্কে  জড়াতে নারাজ হাতপার্টি। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, চন্দ্রবাবু নাইডু,অরবিন্দ কোজরীওয়াল দের মতো বিজেপি বিরোধী বাঘা বাঘা নেতৃবর্গের সঙ্গে ঝামেলা করতে চায়না কংগ্রস। আগামীতে এদের হাতছাড়া করতে নারাজ কংগ্রসের শীর্ষ নেতৃত্ব। কংগ্রসের এক হেভিওয়েট নেতা জানিয়েছেন যে, কোনো কোনো আঞ্চলিক নেতা প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ইচ্ছা রাখেন। আবার তাঁরা এটাও মনে করেন যে কংগ্রেসকে জোটে রাখলে সমস্যা তৈরি হতে পারে। এই ধারনাটা ঠিক নয়। অর্থাৎ তিনি বলতে চেয়েছেন যে প্রধানমন্ত্রী নির্দিষ্ট করা হবে ভোটের ফলাফলের পরে আসন সংখ্যার ভিত্তিতে। তাঁর আগেই বিজেপি বিরোধী দলগুলোর ভিতর ঠান্ডা লড়াই চললে হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। অন্যদিকে, এই কথাতেই সীলমোহর মেরেছেন  অন্য এক কংগ্রসে নেতা জয়রাম রমেশ। বিজেপি বিরোধী জোটের ভিতর বিভাজন মানতে তিনিও নারাজ। বলেছেন,”বেশ কিছু বিরোধী নেতা বা তাঁদের আত্মীয়দের বিরুদ্ধে নানা রকম তদন্ত শুরু করে কেন্দ্র ব্ল্যাকমেল করার চেষ্টা করছে। আমরা তাঁদের বলছি, ভয় পাবেন না। আপস করলে ওরা আরও পেয়ে বসবে।” এভাবে এদিন কংগ্রেস নেতৃত্বদের জোটবদ্ধ হয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করার লাভ বোঝাতে দেখা গেলো বিরোধীপার্টিকে।

Top
error: Content is protected !!