এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অপমানিত ‘ভাইপোর’ জেদে ‘পিসি-ভাইপোর’ মহাজোটে ঠাঁই নেই কংগ্রেসের, জুটতে পারে মাত্র দুটি আসন!

অপমানিত ‘ভাইপোর’ জেদে ‘পিসি-ভাইপোর’ মহাজোটে ঠাঁই নেই কংগ্রেসের, জুটতে পারে মাত্র দুটি আসন!

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে অ-বিজেপি মহাজোটের আসন সমঝোতা প্রায় চূড়ান্ত হয়েই গিয়েছে। এই মহাজোটে অখিলেশ যাদবের সপা বা মায়াবতীর বসপা কেউই কংগ্রেসের সঙ্গ চায় না বলে সূত্রের খবর। কার্যত রাহুল গান্ধীকে দূরে রেখেই লোকসভা ভোট যুদ্ধে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের ‘বুয়া-ভাতিজা’ বা ‘পিসি-ভাইপো’ বলে খ্যাত মায়াবতী ও অখিলেশ যাদব। তবে জোট না করলেও কংগ্রেসের জন্যে রাখা হয়েছে মাত্র ২ টি আসন।

আর সেই দুটি আসন হল – রাহুল গান্ধী সোনিয়া গান্ধীর শক্ত ঘাঁটি হিসাবে পরিচিত আমেঠি এবং রায়বরেলি। এ নিয়ে পাকাপাকি কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া না হলেও মহাজোটে যে কংগ্রেসের জায়গা নেই সেটার সাফ ইঙ্গিত দিয়ে দিয়েছেন বুয়া-ভাতিজা। তবে উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেস কিন্তু এই বিজেপি বিরোধী মহাজোটের অংশীদার হতে মরিয়া। এদিন একটি সংবাদমাধ্যমকে প্রকাশ্যে উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রাজ বব্বর জানিয়েছেন, আসন সমঝোতার ব্যাপারে কংগ্রেস এবং সমাজবাদী পার্টি – আলোচনায় বসেই সিদ্ধান্ত নেবে।

পাশাপাশিই, কংগ্রেস ও সমাজবাদী পার্টির মধ্যে যে আভ্যন্তরীন মনোমালিন্য রয়েছে সেটাও স্বীকার করে নিলেন তিনি। তবে এটাও আশ্বাস দিলেন পারস্পরিক আলোচনায় সমস্ত সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। দিন দুয়েক আগেই সপা শীর্ষনেতা অখিলেশ যাদব স্পষ্ট বুঝিয়ে দেন, উত্তরপ্রদেশের মহাজোটে কংগ্রেসের হাত ধরতে তিনি কোনভাবেই রাজি নন। তিনি স্পষ্ট জানান, সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা ভোটে কংগ্রেসকে সমর্থন করেছিল সপা এবং সপার সহায়তাতেই দীর্ঘদিনের বিজেপি শাসিত এই রাজ্যের ক্ষমতায় আসতে পেরেছে কংগ্রেস।

কিন্তু, একইসাথে অত্যন্ত খেদের সাথে অখিলেশ যাদবের অভিযোগ, সপার একমাত্র বিধায়ককে মন্ত্রীত্ব দেয়নি কংগ্রেস! ফলে, স্বাভাবিকভাবেই কংগ্রেসের উপরে বেজায় চটে রয়েছেন তিনি – শুধু তাই নয়, কংগ্রেসের এই পদক্ষেপে ‘চূড়ান্ত অপমানিত’ বোধ করছেন তিনি বলেও ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন। আর তাই – উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিরোধী মহাজোটে কোনভাবেই কংগ্রেসকে নিতে চান না তিনি। অর্থাৎ যেমন কর্ম তেমন ফল – এমনটাই কংগ্রেসকে বুঝিয়ে দিতে চাইছেন অখিলেশ যাদব। আর এবার ভাইপো অখিলেশ যাদবের সিদ্ধান্তে সায় দিলেন পিসি মায়াবতীও।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এমনিতেই, কংগ্রেসের সঙ্গে আসন সমঝোতায় আপত্তি ছিল বহুজন সমাজবাদী পার্টির নেত্রী মায়াবতীরও। প্রথমে বিজেপি বিরোধী মহাজোটে মায়াবতী কংগ্রেসের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিলেও পরে রাহুল গান্ধীর তরফ থেকে সন্তোষজনক আসন না পাওয়ার অভিযোগ তুলে কংগ্রেসের সঙ্গত্যাগ করেন তিনি। এমনকি সদ্য সমাপ্ত মধ্যপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনেও ‘একলা চলো রে’ নীতি ছিল তাঁর। আর গো-বলয়ের ভোট মিটে যেতেই এবার অখিলেশ যাদব ও মায়াবতী একত্রিত হয়ে তাঁদের কংগ্রেস-বিরোধী অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন।

তবে, শুধু সপা-বসপা নয়, তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও-ও এই অবিজেপি-অকংগ্রেসি জোটকে সমর্থন করে বলেছেন, ‘এই উদ্যোগ প্রশংসনীয়। যাঁরাই বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এক ছাতার তলায় আসতে চান তাদের সকলকে স্বাগত’। তিন রাজ্যে ভালো ফল করলেও, হঠাৎ করে বিজেপি বিরোধী নেতাদের কংগ্রেসের সঙ্গেও সম-দূরত্ত্বের অবস্থান স্বাভাবিকভাবেই চাপে ফেলেছে কংগ্রেসকে। তবে আশা হারাতে নারাজ উত্তরপ্রদেশের হাত শিবির। এখনো অবিজেপি মহাজোটে জায়গা পেতে চেষ্টা করে যাচ্ছেন প্রদেশ কংগ্রেস নেতারা বলে সূত্রের খবর।

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রাজ বব্বর এদিন কার্যত স্বীকার করে নিলেন, জোট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই একটা টালমাটাল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। কংগ্রেসের প্রতি সপা-বসপার ক্ষোভ রয়েছে সেটা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে। তবে পারস্পারিক আলোচনায় এ সমস্যার সমাধান সম্ভব, এই ধারণায় আস্থা রেখেছেন তিনি। অবিলম্বে তিনি এই জোটের ব্যাপারে অখিলেশ যাদবের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বলেই জানিয়েছেন। এমনকি তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখরের রাও-সঙ্গেও একই ব্যাপারে আলোচনা করবেন রাজ বব্বর – এমনটাই জানা গিয়েছে উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেস সূত্রের খবরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!