এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এবার মহারাষ্ট্রে বিজেপি সরকারের কোটি-কোটি টাকার ‘চা-দুর্নীতি’ সামনে আনল কংগ্রেস

এবার মহারাষ্ট্রে বিজেপি সরকারের কোটি-কোটি টাকার ‘চা-দুর্নীতি’ সামনে আনল কংগ্রেস

চা নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এলো মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশের সচিবালয় থেকে। দৈনিক ১৮ হাজার ৫০০ কাপ চা খাওয়ার হিসেব দেখে হতবাক মহারাষ্ট্র কংগ্রেসের সভাপতি সঞ্জয় নিরুপম তথ্য জানার অধিকার আইনে মামলা দায়ের করেন। যা থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী জানা যাচ্ছে ২০১৫-১৬ আর্থিক বছরে চায়ের বিল বাবদ খরচ হয়েছে ৫৮ লক্ষ টাকা। যা ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা। এই তথ্যের ভিত্তিতে কংগ্রেস সভাপতি সঞ্জয় নিরুপম মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে চা দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী ও তাঁর মন্ত্রী পরিষদ রোজ কী ধরণের চা খেয়ে থাকেন খোঁজ করা হলে জানা যায় মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয়ে প্রধাণত গ্রিন টি, ইয়েলো টি এবং গোল্ডেন টি প্রভৃতির চল আছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে যে রাজ্যে কৃষকদের ঋণ মুকুবের জন্যে পথে নেমে আন্দোলন করতে হয়, মিছিলে হাঁটতে হয় সেই রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী সহ তাঁর মন্ত্রী পরিষদের চা এর জন্যে ব্যয় করা অর্থের পরিমান স্বভাবতই বিস্ময়ের। তবে রিরাট টাকার অঙ্ক দেখে এখানে বিরোধীদের প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে যে চা এর খাতে এই ব্যয় নাকি চা কে উপলক্ষ্য করে নতুন কোনো অর্নৈতিক দুর্নীতির চক্রান্ত প্রকাশ্যে এলো। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই দিল্লিতে অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকারের বিরুদ্ধেও একই রকম অভিযোগ ওঠে। সামনের বছরেই লোকসভা নির্বাচন, ইতিমধ্যেই বিজেপির সবথেকে পুরোনো সঙ্গী জানিয়ে দিয়েছে সেই নির্বাচনে তারা আর বিজেপির জোটসঙ্গী ঠেকছে না। ফলে ৪৮ আসন বিশিষ্ট মহারাষ্ট্রে এমনিতেই ত্রিমুখী লড়াইয়ে ব্যাকফুটে বিজেপি। তার উপরে কংগ্রেসের তোলা এই ‘চা-দুর্নীতি’ যে নতুন করে চাপ বাড়াল বিজেপির উপরে সেকথা বলায় বাহুল্য।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!