এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > পুরভোটে ঘুরে দাঁড়াতে অভিনব পুরস্কারের ঘোষণা কংগ্রেসের! পেতে পারেন আপনিও – জেনে নিন বিস্তারে

পুরভোটে ঘুরে দাঁড়াতে অভিনব পুরস্কারের ঘোষণা কংগ্রেসের! পেতে পারেন আপনিও – জেনে নিন বিস্তারে

ভেঙ্গে পড়া ব্যবসাকে সচল করতে অনেক সময় লাকি ড্র অথবা লোভনীয় পুরস্কারের হাতছানি দিয়ে খরিদ্দারকে নিজের দিকে টানার সাদৃশ্য রয়েছে। কিন্তু ভেঙে পড়া রাজনৈতিক সংগঠনকে চাঙ্গা করতে জনতার মধ্যে পুরস্কারকে সামনে রেখে প্রতিযোগিতা শুরু করার মত ঘটনা নজিরবিহীন বলেই মনে করা হচ্ছে। কিছুটা অবাক করা হলেও জিয়াগঞ্জ-আজিমগঞ্জ যুব কংগ্রেসের তরফ থেকে এরকমই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে।

চ্যানেল 10 নামে এই প্রতিযোগিতায় মুর্শিদাবাদ জেলা যুব কংগ্রেসের তরফ থেকে একটি হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার দেওয়া হয়েছে শহরের সকল বাসিন্দাদেরকে। 16 ই নভেম্বর থেকে 16 ই ডিসেম্বর পর্যন্ত এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে বলা হয়েছে। প্রতিযোগিতার বিষয় হল, এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ নাগরিক সমস্যা বা এলাকার স্থানীয় সমস্যা তুলে ধরতে পারলেই নির্ধারিত পুরস্কার পাওয়ার সুযোগ মিলবে। এক্ষেত্রে 10 টি গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার কথা তুলে ধরতে হবে।

তারপরে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে উঠে আসা সেই সমস্ত সমস্যাকে সামনে রেখে পৌরসভার ময়দানে নামবে কংগ্রেস। কংগ্রেস সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন নাগরিকরা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যে সমস্যাগুলো তুলে ধরবেন, তার মধ্যে গুরুত্বের দিক থেকে বড় সমস্যাগুলিকে সামনে রেখে আন্দোলনে নামবে কংগ্রেস। এক্ষেত্রে যারা সবচাইতে বড় সমস্যাগুলি চিহ্নিত করবে, তাদের হাতে নির্ধারিত পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে যদি কেউ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হন, তাহলে তার নামও সম্পূর্ণরূপে গোপন রাখা হবে বলে জানা গেছে।

ইতিমধ্যেই এই অভিনব উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে জেলার বিভিন্ন সংগঠন। বর্তমানে জিয়াগঞ্জ আজিমগঞ্জ পৌরসভা তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে রয়েছে। রাজনৈতিক বিরোধিতা থাকা সত্ত্বেও তৃণমূল কংগ্রেসের তরফ থেকে অবশ্য কংগ্রেসের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানানো হয়েছে। এই বিষয়ে জিয়াগঞ্জ-আজিমগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান প্রসেনজিৎ ঘোষ বলেন, “আমরা এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। শুধু কংগ্রেস কেন, অন্য যে কেউ আমাদের সামনে সমস্যার কথা তুলে ধরলে, তা সমাধানের চেষ্টা করব। এলাকায় অনেক উন্নয়নের কাজ করেছি।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তিনি আরও বলেন, “কাজ করতে গেলে ভুল হয়। আমরা সেই ভুলগুলি জানতে পারলে, ঠিক করে নেব। তবে এতটুকু বলতে পারি, শহরের বহু সমস্যার সমাধান হয়েছে।” রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এককালে জিয়াগঞ্জ-আজিমগঞ্জ পৌরসভাতে কংগ্রেসের শক্তিশালী সংগঠন থাকলেও, বর্তমানে তা নেই। গত লোকসভা ভোটের ফলাফল অনুযায়ী অনেকটাই ব্যাকফুটে রয়েছে পৌরসভার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। এখানে সতেরোটি ওয়ার্ডে অন্যদের থেকে এগিয়ে রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি।

তাই বিরোধী দল হিসেবে ভারতীয় জনতা পার্টিকে টেক্কা দিতে এবং নিজেদের সংগঠন দিয়ে আগামী দিনে পৌরসভায় ক্ষমতায় ফিরে আসতে এই অভিনব পদ্ধতি গ্রহণ করেছে যুব কংগ্রেস বলে মনে করা হচ্ছে। এদিন এই বিষয়ে মুর্শিদাবাদ যুব কংগ্রেসের অন্যতম নেতা অর্ণব রায় বলেন, “আমরা এলাকায় বহু সমস্যার কথা জানি। তবু সাধারণ লোকজনের কাছ থেকে আমরা শহরের সমস্যাগুলি শুনতে চাইছি। সেই কারণেই চ্যালেঞ্জ 10 প্রতিযোগিতা শুরু করা হয়েছে। আমাদের বিশ্বাস, এর মাধ্যমে এলাকার বহু সমস্যা সামনে উঠে আসবে।”

ওয়াকিবহাল মহল মনে করছেন, সাধারণ মানুষের সমস্যার কথা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে শুনে সেই সমস্যাগুলিকে হাতিয়ার করে যদি নির্বাচনের রণাঙ্গনে কংগ্রেস নেমে পড়ে, তাহলে ভোটে তাদের সুফল পাওয়ার আশা রয়েছে। এদিকে কংগ্রেস যে অবস্থানই গ্রহণ করুক না কেন, হাল ছাড়ার পাত্র নয় ভারতীয় জনতা পার্টি। লোকসভা ভোটে এলাকার সতেরোটি ওয়ার্ডে এগিয়ে থেকে তাদের আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে।

এদিন ভারতীয় জনতা পার্টির নেতা শাখারভ সরকার বলেন, “লোকসভা নির্বাচনের মতো পুরভোটেও মানুষ আমাদের ভোট দেবে। প্রকৃত উন্নয়ন আমরাই করতে পারি।” কিন্তু জেলার 6 টি পৌরসভা ভোট আগামী দিনে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। ভোটের আগে সব পক্ষই নিজের নিজের প্রচার কর্মসূচি স্থির করছেন। কিন্তু এক্ষেত্রে অন্যদের তুলনায় ইতিমধ্যেই কংগ্রেস যে অভিনব কায়দায় প্রচার শুরু করল, তা অন্যদের কাছে প্রকৃতই চ্যালেঞ্জ 10 হিসেবে সামনে আসতে পারে কি না, সেদিকেই নজর বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!