এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > গো-বলয়ের জয় অক্সিজেন দিচ্ছে রাজ্য কংগ্রেসকেও, তৃণমূল নেত্রী দিল্লি গেলেও একাই লড়াই চান সোমেন-মান্নানরা

গো-বলয়ের জয় অক্সিজেন দিচ্ছে রাজ্য কংগ্রেসকেও, তৃণমূল নেত্রী দিল্লি গেলেও একাই লড়াই চান সোমেন-মান্নানরা

দেশের পাঁচ রাজ্যের মধ্যে প্রায় তিন রাজ্যে ক্ষমতা দখল করেছে কংগ্রেস। আর যার জেরে দেশের প্রায় সমস্ত রাজ্যের কংগ্রেস নেতা কর্মীরা নিজেদের পুরনো অক্সিজেন পেতে শুরু করেছেন। যার প্রভাব এসে পড়েছে এই বাংলাতেও। ছত্রিশগড়, মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে তারা যে সরকার গড়ছে এই ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েই রাতারাতি কোলকাতার রানী রাসমণি রোডে একটি সভা ডেকে ফেললেন রাজ্য প্রদেশ কংগ্রেসের নেতারা।

যেখানে উপস্থিত ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র, প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী, সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য, রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান, দীপা দাশমুন্সি, মনোজ ভট্টাচার্য সহ রাজ্যের হেভিওয়েট কংগ্রেস নেতারা।

রাজনৈতিক মহলের মতে, এই সভা থেকেই রাজ্যে ফের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে কংগ্রেস। দেশের পাঁচ রাজ্যের মধ্যে তিন রাজ্যেই দলের এই জয় আদতে কংগ্রেস নেতা কর্মীদের আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে অনেকটাই উৎসাহিত করেছে। আর তাই রাজ্যে রাজ্যে দলীয় সংগঠন বিস্তারে আর এক ধাপ এগোলো হাত শিবির।

সূত্রের খবর, এদিনের এই সভা থেকে বিজেপির পাশাপাশি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকেও কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন প্রদেশ কংগ্রেস নেতারা। কিন্তু যে বিজেপিকে সরাতে কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর সাথে এক টেবিলে বসে বৈঠক করছেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই তৃণমূলেরই কেন বিরোধীতা করছেন রাজ্য কংগ্রেসের নেতারা?

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে যদি রাহুল গান্ধীর সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে জোট করেন তাহলে প্রদেশ কংগ্রেসের নেতারা কি করবেন? এদিন এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দলের সভা মঞ্চ থেকেই দিয়েছেন রাজ্যের কংগ্রেসের নেতারা। তৃণমূলের কঠোর সমালোচনা করে এদিন প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা সাংসদ অধীর চৌধুরী বলেন, “দিদি দিল্লি যাওয়ার আগে বাংলা সামলান। দিল্লির চেয়ার রাহুল গান্ধীর জন্য স্থির হয়ে গেছে। সেখানে আর কারোর জায়গা হবে না।”

অন্যদিকে রাজ্যে একা লড়ার পক্ষেই সওয়াল করেছেন সোমেন মিত্র, অধীর চৌধুরী, আব্দুল মান্নান, মনোজ চক্রবর্তীরা। যেখানে দলের এহেন স্ট্রাটেজিকে সমর্থন জানিয়েছেন কংগ্রেসের দীপা দাশমুন্সি, প্রদীপ ভট্টাচার্যরাও। এদিন এই প্রসঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, “আমরা এই রাজ্যে একক শক্তিতেই লড়ব।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক মহলের মতে, রাজ্যে কংগ্রেসের সংগঠনের ধ্বস নামার পেছনে রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের হাত। আর তাইতো লোকসভা নির্বাচনের আগে দেশের পাঁচ রাজ্যের দলের ভালো ফলাফলে এই রাজ্যে জোটের ক্ষেত্রে সেই তৃণমূলের প্রতি তীব্র আপত্তি জানালেন প্রদেশ কংগ্রেসের নেতারা। বরঞ্চ একা লড়ার পক্ষেই জোর সওয়াল করলেন তাঁরা।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!