এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > তিন রাজ্যে বড় জয় পেয়েই ভোল বদল কংগ্রেসের, তৃতীয় ফ্রন্টকে কটাক্ষ হাত শিবিরের

তিন রাজ্যে বড় জয় পেয়েই ভোল বদল কংগ্রেসের, তৃতীয় ফ্রন্টকে কটাক্ষ হাত শিবিরের

১৯’এর লোকসভা নির্বাচনকে টার্গেট করে অ-কংগ্রেসি এবং অ-বিজেপি জোট গঠনের লক্ষ্যে বঙ্গ সফরে আসেন তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে এক প্রস্থ বৈঠক হয় বঙ্গের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রীর এই সফরকে ‘শীতকালীন ভ্রমণ’ বলে কটাক্ষ করল কংগ্রেস। গতকাল কংগ্রেসের তরফ থেকে তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করে তির্যক ভঙ্গিতে বলা হয়,পুনরায় মুখ্যমন্ত্রী হয়ে বাংলায় বেড়াতে এসেছেন কেসিআর।

নবান্নে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলনে কে চন্দ্রশেখর রাও বলেন, “আমরা খুব তাড়াতাড়ি ফেডারেল ফ্রন্ট নিয়ে একটি সংগঠিত পরিকল্পনা করে আপনাদের সামনে হাজির হবো”। পাশাপাশি তিনি আরো জানান, অ-কংগ্রেসি এবং অ-বিজেপি জোট গঠনের লক্ষ্যেই এতো তোড়জোড় তাঁদের। এবং এই লক্ষ্য সুনিশ্চিত করতে চেষ্টার কোনো খামতি রাখবেন না তিনি। উল্লেখ্য,কোলকাতা সফরের আগে ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের সঙ্গেও দেখা করে আসেন তিনি।

এছাড়া একইভাবে দিন দুয়েক আগেই জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লার সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন তিনি। পড়শি রাজ্যের হেভিওয়েট রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের সঙ্গেও তৃতীয় ফ্রন্ট অর্থাৎ অ-কংগ্রেসি এবং অ-বিজেপি জোট নিয়েও আলোচনা হয়েছে,এমনটাই জল্পনা। আর এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের পরও তৃতীয় ফ্রন্ট গঠন নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করলেন তিনি। সেকারণের তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রীর বঙ্গসফর নিয়ে কটাক্ষ করল কংগ্রেস।এমনটাই মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

 

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রথম থেকে কংগ্রেস এবং বিজেপির থেকে সমদূরত্ব বজায় রেখে এসেছেন তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী। ১৯’এর লোকসভা ভোটের জন্যে তিনি যে তৃতীয় ফ্রন্ট গঠন করতে ইচ্ছুক,এটাও প্রকাশ্যে বুঝিয়ে দিয়েছেন দফায় দফায়৷ একই ধারণায় বিশ্বাসী ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীও। বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও যে একের বিরুদ্ধে বহুতত্ত্বে বিশ্বাসী তার প্রমাণ দিয়েছিলেন ফেডারেল ফ্রন্ট গঠনের ডাক দিয়ে।

এই প্রেক্ষিতে কংগ্রেসের বক্তব্য,চন্দ্রশেখর বিজেপিকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার জন্যে তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনের চেষ্টা করছেন। কেসিআর যে লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন,তা আসলে পন্ডশ্রম এমনটা বলেই তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রীর বঙ্গসফরকে কটাক্ষ করল কংগ্রেস। তবে উল্লেখ্য,কেসিআর তৃতীয় ফ্রন্ট গঠন নিয়ে মাতামাতি করলেও তৃণমূল এখনো এ ব্যাপারে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেনি।

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে চন্দ্রশেখর রাও তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনের বার্তা দিলেও কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে দেখা যায়নি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তাই আঞ্চলিক দলগুলোকে নিয়ে কংগ্রেস-বিজেপি বিরোধী জোট গঠনেী লক্ষ্যে কেসিআর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাশে পাবেন কিনা তা আপাতত প্রশ্নচিহ্নের মুখে। এই প্রেক্ষিতে তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রীর বঙ্গসফরকে কংগ্রেসের কটাক্ষ যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!