এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > নিজেদের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণে অবশেষে বড়সড় পদক্ষেপ কলেজের অস্থায়ী কর্মীদের

নিজেদের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণে অবশেষে বড়সড় পদক্ষেপ কলেজের অস্থায়ী কর্মীদের


আজ সকাল থেকে পশ্চিমবঙ্গ কলেজ অস্থায়ী কর্মচারী সমিতির মেদিনীপুর কলেজ ইউনিটের সদস্যরা ইউনিটের সম্পাদক সুদীপ্ত দে-এর নেতৃত্বে গেটের সামনে ব্যানার নিয়ে ধর্মঘটে বসেন। কলেজের গেট বন্ধ করে আন্দোলনকারীরা ধর্মঘটের অঙ্গ হিসেবে অবস্থান করায় কলেজের ছাত্রছাত্রী সহ অধ্যাপক-অধ্যাপিকারা কলেজে প্রবেশ করতে পারেননি।

স্থানীয় সূত্রের খবর, এর ফলে খোলেনি অফিস, হয়নি কোনও ক্লাস। আজ কলেজে কার্যত অচলাবস্থা দেখা দেয়। পশ্চিমবঙ্গ কলেজ অস্থায়ী কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দীর্ঘদিনের বেশ কয়েকটি দাবি পূরণ না হওয়ার জন্যই এদিন তাঁরা ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছেন। এই প্রসঙ্গে ওই সংগঠনের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক তথা মেদিনীপুর কলেজের এক অস্থায়ী শিক্ষা কর্মী আশিস মণ্ডলও মুখ খোলেন।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আশিসবাবু জানান, মেদিনীপুর কলেজে মোট ৩৫ জন অস্থায়ী শিক্ষাকর্মী রয়েছেন। ওই অস্থায়ী শিক্ষাকর্মী অন্যান্য স্থায়ীকর্মীদের মতো নিষ্ঠা ও দায়িত্ব সহকারে পুরোমাত্রায় ডিউটি করলেও জীবনযাপনের মত সঠিক বেতন পান না। তিনি আরও জানান, আমাদের কাজের সরকারি কোনও স্বীকৃতি নেই। সেজন্যই আজ আমরা ধমর্ঘটে সামিল হয়েছি।

আশিসবাবুর সুস্পষ্ট দাবি, আমাদের সবার ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত চাকুরি সুনিশ্চিতকরণ সহ সরকারী স্বীকৃতির দাবিগুলি না মেনে নিলে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামব। প্রসঙ্গত, আজ প্রতিটি কলেজেই ওই সংঠনের পক্ষ থেকে ওই একই ইস্যুতে ধর্মঘট হওয়ার কথা। ওই সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর তাঁদের বিকাশ ভবন অভিযান কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। দাবি পূরণের আশ্বাস না পেলে সেখানে গণঅবস্থান ও আমরণ অনশন করা হবে বলেও সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!