এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কলেজে তোলাবাজি-পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েও,আদালতে গিয়ে উল্টো সুর,উঠছে প্রশ্ন

কলেজে তোলাবাজি-পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েও,আদালতে গিয়ে উল্টো সুর,উঠছে প্রশ্ন

থানায় এফআইআর দায়ের করেও  কাঠগড়ায় সাক্ষী দিতে উঠে পুরো  উল্টো সুর গাইলেন প্রফুল্ল কলেজে ভর্তি হওয়া এক ছাত্র। রিজেন্ট পার্ক থাকা এলাকার বাসিন্দা ওই ছাত্রটি পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিলেন যে কলেজে ভর্তি করানোর নাম করে তোলাবাজি করছে কলেজ ছাত্র জাহির আহমেদ এবং সায়ন মুখোপাধ্যায়।  তাঁর কাছ থেকেও নেওয়া হয়েছে ২৫ হাজার টাকা। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ গ্রেফতার করে অভিযুক্তদের। কিন্তু এদিন কেসটি আদালাতে উঠলে ওই ছাত্রটি সম্পূর্ণ বিপরীত মেরুতে দাঁড়িয়ে বলেন,”আমি মামলা প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।” তিনি আরো জানান যে, একটা ভুল বোঝাবুঝির জন্য এমন হয়েছে। টাকা নেওয়ার খবর সঠিক হয়। এছাড়া ছাত্রটি হলফনামা দিয়ে জানান যে, এই ঘটনায় অভিযুক্ত দুজনকে জামিন দেওয়া হলে তাঁর কোনো আপত্তি নেই। এ কথা শুনে চক্ষু চড়কগাছ আদালতে উপস্থিত পুলিশ প্রশাসন সহ বিচারকের। তবে আইন মোতাবেক,তাঁর বয়ানের পরই আলিপুরের ভারপ্রাপ্ত বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট ধৃত ওই দুইজন কলেজ ছাত্রের জামিনের আবেদন মঞ্জুর করে দেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এভাবে দুর্নীতিপরায়ণ ঠকবাজরা জামিনে মুক্তি পেলে সমাজের কী হবে এ প্রশ্ন তুলে অনেকেই সরব হয়েছিলেন। এঁদের মুখে কুলুপ আঁটতে ধৃতদের পক্ষের আইনজীবী তীর্থঙ্কর রায় পাল্টা প্রশ্ন তুলে জানান, যেখানে টাকা নেওয়ার কোনো ঘটনাই ঘটেনি, সেখানে মামলাটা চলবে কিসের উপর ভিত্তি করে? এর থেকে বড়  বিষয় হল, যিনি কেস করেছিলেন তিনিই কেস তুলে নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন কোর্টে। তবে থানা কেন কোর্টের কাছে পুলিশি হেফাজতের আবেদন করেছিলো এ প্রশ্নের জন্য কোনো উত্তর ছিল না তীর্থঙ্কর বাবুর কাছে। এদিকে উক্ত বিষয়ে তদন্তকারী অফিসার জানান যে, ছাত্রটির সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতেই ধৃত ওই যুবক দুজনের বিরুদ্ধে প্রতারণা,বিশ্বাসভঙ্গ এবং ষড়যন্ত্রের মামলা দায়ের করা হয়েছিলে। এখন ছাত্রটিই যদি শেষ  মুহূর্তে পাল্টি খায় সেখানে পুলিশ কী করবে! এ বিষয়ে আদালতের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে মানা হবে। অন্যদিকে, এদিনের শুনানিতে সরকারি তরফের কোনো আইনজীবী হাজির না থাকায় আদালত চত্বরে গুঞ্জন কিছু কম ছিল না, বলেও জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!