এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > বিজেপির ‘বঞ্চনায়’ থমকে উন্নয়ন, কেন্দ্রে ক্ষমতার বদল হলেই গতি পাবে তা – নিশ্চিত করলেন মুখ্যমন্ত্রী

বিজেপির ‘বঞ্চনায়’ থমকে উন্নয়ন, কেন্দ্রে ক্ষমতার বদল হলেই গতি পাবে তা – নিশ্চিত করলেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজনৈতিক বা প্রশাসনিক – রাজ্যের প্রায় প্রতিটি সভাতেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে বর্তমানে তীব্রভাবে সরব হতে দেখা যাচ্ছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এবার সাগরদ্বীপকে মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে যুক্ত করে মুড়িগঙ্গার ওপর এখনও সেতু তৈরীর কাজ সম্পন্ন না হওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকারের উপর প্রবল ক্ষোভ প্রকাশ করলেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান। তিনি স্পষ্ট জানান, এই প্রকল্পের জন্য তাজপুর বন্দরের ৭৪% অংশীদারিত্ব কেন্দ্রীয় সরকারকে দিয়ে দেওয়ার কাজও সম্পন্ন হয়েছে। তারপরেও এর কাজ সম্পন্ন করে নি কেন্দ্র সরকার। একইসঙ্গে, ইঙ্গিত দেন সরকারের পরিবর্তন হলে বোধহয় কপাল খুলবে সাগরের!

জানা যায়, কাকদ্বীপের ৮ নম্বর লট থেকে ভেসেলের মাধ্যমে মুড়িগঙ্গা পার হতে হয় – আর তারপরই সাগরদ্বীপে পৌঁছানো যায়। কিন্তু, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মুড়িগঙ্গায় পলি জমে থাকার কারণে ভেসেল দিয়ে চলাচলে প্রবল সমস্যার সৃষ্টি হয়। যার ফলে সাগরদ্বীপের মেলার সময় লক্ষ লক্ষ পর্যটক ও দর্শনার্থীরা প্রবল দুর্ভোগে পড়েন। হিসেব অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত মেলার ১৫ দিনের বেশি সময় বাকি থাকলেও প্রতিদিনই প্রায় গড়ে ১৫ হাজার মানুষ এই তীর্থক্ষেত্রে আসতে শুরু করেছেন। মেলা কর্তৃপক্ষের ধারণা, গতবারের দর্শনার্থীদের জমায়েতও এবার ছাপিয়ে যাবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, গতবার প্রায় ২২ লক্ষ তীর্থযাত্রী এখানে এসেছিলেন। আর এবার তা ২৫ লক্ষের কাছাকাছি হতে পারে। তবে সাগরদ্বীপের এই মেলাকে ঘিরে সকল তীর্থযাত্রীর আকর্ষণ ও উদ্দীপনা থাকলেও বাদ সাধছে সেই কাকদ্বীপের আট নম্বর লটই। ফলে এখানে আসা তীর্থযাত্রীদের নদী পার হওয়ার হাহাকার সর্বদাই শোনা যায়। তবে এই মেলার আগেই এখানকার সমস্ত পলি তুলে ভেসল চলাচলের পথকে মসৃণ করার চেষ্টা চলছে বলে জানান স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক তথা গঙ্গাসাগর ডেভলপমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান বঙ্কিম হাজরা।

কিন্তু, কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর এই কাজের দায়িত্ব বর্তালেও কেন এখনও পর্যন্ত সেই কাজ সম্পূর্ণ করতে পারল না কেন্দ্র এদিন সেই প্রশ্ন তুলে ফের কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন তিনি বলেন, “এই প্রকল্পটি কেন্দ্রের করার কথা ছিল। কিন্তু কেন্দ্র এখনো সেতু তৈরীর ব্যাপারে কিছুই করল না। দেখি পরবর্তী পর্যায়ে এটা করা যায় কিনা”! রাজনৈতিক মহলের মতে, মুখ্যমন্ত্রীর এই কৌশলী মন্তব্যের মধ্যে দিয়েই পরিষ্কার যে, আগামী লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রে যদি ক্ষমতার বদল হয় তাহলে এই কাজটি সম্পন্ন হবে। তাইতো সেতু তৈরির কথা বলে কেন্দ্র থেকে পরোক্ষে বিজেপি সরকারকে বিদায়েরও আহ্বান জানালেন তিনি। তবে মুখ্যমন্ত্রীর এই আবেদনে ঠিক কতটা সাড়া দেন সাগরের মানুষ এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!