এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের আগে পুলিশের ‘অনুরোধে’ বাতিল হয়ে গেল গেরুয়া শিবিরের ‘ধিক্কার মিছিল’

মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের আগে পুলিশের ‘অনুরোধে’ বাতিল হয়ে গেল গেরুয়া শিবিরের ‘ধিক্কার মিছিল’

রাজ্যে পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে প্রায় বিভিন্ন সভাতেই ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন বিজেপি নেতারা। কিন্তু এবারে সেই পুলিশ প্রশাসনের অনুরোধেই কেশিয়াড়িতে নিজেদের ঘোষিত মিছিল বাতিল করল বিজেপি। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কেশিয়াড়িতে এবারে পঞ্চায়েত সমিতি দখল করেছে বিজেপি।

কিন্তু এখনও পর্যন্ত সেখানে বোর্ড গঠন করতে পারেনি তারা। আর তাই রবিবার এই ব্যাপারে ধিক্কার মিছিলের ডাক দিয়েছিল বিজেপি। কিন্তু সোমবার এই কেশিয়াড়িতেই প্রশাসনিক সভা করতে আসছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে সেই মুখ্যমন্ত্রীর সফরের ঠিক আগে বিজেপির এই ধিক্কার মিছিল যে অনেকটাই অস্বস্তিতে ফেলবে জেলা প্রশাসনকে তা ভেবেই বিজেপির এই মিছিলের অনুমতিতে না করে দেয় প্রশাসন।

সূত্রের খবর, গত শনিবার রাতে জেলা পুলিশের পদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে এই ব্যাপারে দফায় দফায় আলোচনা করে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পুলিশ বিজেপির মিছিল বন্ধ করে দেওয়ার আর্জি জানায়। আর তাতেই রাজি হয়ে নিজেদের এই কর্মসূচি স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয় গেরুয়া শিবির।

তবে সাময়িকভাবে এই মিছিল স্থগিত রাখলেও মুখ্যমন্ত্রীর সভা শেষ হয়ে গেলেই তারা এই বিষয়টি নিয়ে ধারাবাহিক আন্দোলনে নামবে বলে জানান জেলা বিজেপির সভাপতি সমিত দাস। অন্যদিকে সোমবার মুখ্যমন্ত্রী আসছেন। আর তাই মুখ্যমন্ত্রীর এই সভাকে সফল করতে জন্য রবিবার কেশিয়াড়িতে একটি দলীয় মিছিল ও সভার আয়োজন করে শাসকদলের নেতৃত্বরা।

দলীয় সূত্রের খবর, এদিনে মুখ্যমন্ত্রীর সভার আগেই দলীয় প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি অজিত মাইতি। অন্যদিকে এদিন কেশিয়াড়ি অডিটোরিয়ামেও আদিবাসীদের নিয়ে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন, তৃনমূল বিধায়ক পরেশ মুর্মু, রমাপ্রসাদ তিওয়ারী সহ অন্যান্যরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

ইতিমধ্যেই গোটা কেশিয়াড়ি শহরজুড়ে মুখ্যমন্ত্রীর ফ্লেক্স ও তৃণমূলের পতাকায় মুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। ঠিক কত লোক আসবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই প্রশাসনিক সভায়? এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা তৃণমূলের সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, “জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ এই সভায় যোগ দেবেন।” সব মিলিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের ঠিক প্রাকমুহূর্তে কেশিয়াড়িতে তীব্র উন্মাদনা শাসক শিবিরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!