এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মুখ্যমন্ত্রীর এক ফোনে বদলে গেল সমীকরণ, ফস্কে গেল মুকুল রায়ের ‘হাতের গ্রাস’

মুখ্যমন্ত্রীর এক ফোনে বদলে গেল সমীকরণ, ফস্কে গেল মুকুল রায়ের ‘হাতের গ্রাস’

সামনের পঞ্চায়েত ভোটের সব দ্বায়িত্ব মুকুল রায়কে দিয়েছে বিজেপি। এদিকে মেয়রের সাথে সম্পর্ক ক্রমশ খারাপ হয়েছে মমতার। এই সময় সুযোগ বুঝে শোভনকে দলে নিয়ে পরোক্ষ ভাবে ঝাঁপিয়েছিলেন মুকুলবাবু এমনটাই মত রাজনৈতিকমহলের। আর তাই প্রকাশ্য জনসভায়  ”শোভন চট্টোপাধ্যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। তিনি দল ছাড়লে মমতা ও তৃণমূল সমস্যার পড়বে।”  বলে শোভনবাবুর পশে দাঁড়িয়েছিলেন। আর তাতেই তৃণমূল শিবিরের দলীয় ভাবনা চিন্তায় পরিবর্তন এসেছে বলেও মনে করছে অনেকে। কেননা সামনেই পঞ্চায়েত ভোট আর তাই শোভনবাবু যদি দল থেকে বহিস্কৃত হয়ে বিজেপিতে যায় তবে ক্ষতি তৃণমূলেরই আর তাই নাকি মুখ্যমন্ত্রী  ফোন  করে সব মিটিয়ে নিয়েছেন এমনটাই মত রাজনৈতিকমহলের। মুখ্যমন্ত্রীর ফোন পেয়ে কথা শেষ করার অল্প সময়ের মধ্যেই মেয়র সংবাদ মাধ্যম কে বললেন ,”মুখ্যমন্ত্রী সোমবার আমায় ফোন করেছিলেন। আজও কথা হয়েছে দিদির সঙ্গে। উনি বলেছেন, যেভাবে কাজ করছো, করে যাও। কে কী বলল, কোন বিষয় সমানে আনল, ওসব ভাবার দরকার নেই। কোনও দিকে কান না করে শুধু মানুষের কাজ কর। সামনে অনেক কাজ। আর অবহেলা না করে দায়িত্ব পালন কর।” জানা যাচ্ছে সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর সাথে কথা বলার পর মঙ্গলবার কলকাতা পুরসভায় মেয়রকে পুরোনো মেজাজে কাজ করতে দেখা যায়। প্রসঙ্গত ,মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মতবিরোধ,পুরসভার নানা অনৈতিক কাজে যুক্ত থাকা , মেয়রের পারিবারিক সম্পর্কের অবনয়ন প্রভৃতির মতো বিষয়ে অল্প কদিনের তীব্র জল্পনা কল্পনার পর অবশেষে স্বাভাবিক হলো মুখ্যমন্ত্রী ও মেয়রের সম্পর্ক।তাই এখন রাজনৈতিকমহল বলছেন যে,মুখ্যমন্ত্রীর এক ফোনে বদলে গেল সমীকরণ, ফস্কে গেল মুকুল রায়ের ‘হাতের গ্রাস।’

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!