এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ৭ বছরেই কৃষকদের আয় নিয়ে বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর – জেনে নিন ‘কৃষক দরদী’ রাজ্য সরকারের দেওয়া খতিয়ান

৭ বছরেই কৃষকদের আয় নিয়ে বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর – জেনে নিন ‘কৃষক দরদী’ রাজ্য সরকারের দেওয়া খতিয়ান

Priyo Bandhu Media


দেশজুড়ে কৃষকদের সংকট নিয়ে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে প্রায় সব বিরোধী রাজনৈতিক দলই। এদিকে দেশে চলা এই অসন্তোষকে রাজ্যের কৃষকদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতেও তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক অস্ত্র শানাচ্ছে বামেরা। কিন্তু বামেদের এই আন্দোলন যাতে ঠিকমতো দানা বাঁধতে না পারে সেজন্য এবার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠন রাজ্য কিশান ক্ষেতমজুরের পক্ষ থেকে আগামী ৪ ঠা ফেব্রুয়ারি একটি রাজ্য সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছে।

অনেকেই মনে করছেন, সম্প্রতি রাজ্যে বামেরা ঘুরে দাঁড়াতে সিঙ্গুর থেকে একটি কৃষক লংমার্চ করেছিল। যেখানে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতি প্রবল আন্দোলন গড়ে তুলেছিলেন তাঁরা। অন্যদিকে বিজেপিও এই রাজ্যে কৃষকদের সংকট নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে প্রায়শই তোপ দাগছে। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে গতকাল কৃষক দিবসে রাজ্যব্যাপী একটি কৃষক সমাবেশেরই ডাক দিল তৃণমূল কংগ্রেস। সূত্রের খবর, এদিন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী চৌধুরী চরণ সিংয়ের জন্মদিন তথা কৃষক দিবসে সোশ্যাল মিডিয়ায় বাংলার কৃষকদের জন্য তাঁর সরকার ঠিক কী কী কাজ করেছে তা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি দাবি করেন, “২০১০-১১ সালে রাজ্যে কৃষকদের মাথাপিছু গড় আয় ৯১ হাজার টাকা। ২০১৭-১৮ সালে সেই আয়ের পরিমাণ তিনগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। রাজ্য সরকার কৃষকদের কৃষি ঋণ মুকুব, কৃষি জমির মিউটেশন ফি তুলে দিয়েছে। কৃষকদের স্বার্থ রক্ষায় বদ্ধপরিকর তৃণমূল সরকার”। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ক্ষমতায় আসার পর থেকেই নিজেদের কৃষক দরদী সরকার রূপে প্রতিষ্ঠিত করতে তৎপর হয়ে উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেস। কেননা বিগত বাম জমানায় সিঙ্গুরের অনিচ্ছুক কৃষকদের জমি রক্ষার আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই এই রাজ্যে ক্ষমতায় এসেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এমনকি ক্ষমতায় আসার সাথে সাথেই আইনি জটিলতা কাটিয়ে সেই সিঙ্গুরের অনিচ্ছুক চাষীদের কৃষিজমি ফেরতও দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে কৃষকদের জন্য কল্পতরু হলেও রাজ্যে কৃষি ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে বলে প্রায়শই শাসকদল তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগে বিরোধীরা। এমনকি সম্প্রতি সিঙ্গুর থেকে একটি কৃষি লংমার্চে বামেরা সেই সিঙ্গুরের কৃষি জমিতে কোনো চাষ হচ্ছে না বলে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে প্রবল কটাক্ষ করেন। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে যাতে বাংলার কৃষি সমাজের ভোট ভাগাভাগি না হয়ে যায় সেজন্য কৃষকদের নিয়ে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে নেতাজি ইন্ডোরে একটি কৃষক সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত নিল তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আমলে রাজ্যের কৃষি উৎপাদন থেকে কৃষিজীবী মানুষের রেকর্ড পরিমাণ আর্থিক ও সামাজিক উন্নয়ন ঘটেছে। যা গোটা দেশের কাছে বাংলার কৃষক সমাজের দৃষ্টান্তস্বরূপ। বিরোধীরা কোনো সাফল্য দেখতে পাচ্ছে না। তাই মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। তাই দলের কৃষক শাখা রাজ্য সরকারের সাফল্যকে সামনে রেখে সমাবেশের কর্মসূচি নিতে চলেছে”। সব মিলিয়ে এবার আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে বিরোধীদের দাবি উড়িয়ে নিজেদের কৃষকদরদী হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টায় রাজ্যের শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেস।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!