এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > মুখ্যমন্ত্রীর ছবিকে অপমানের অজুহাতে তালা বিজেপি উপপ্রধানের অফিসে, থানায় এফআইআর – ধুন্ধুমার উত্তরবঙ্গে

মুখ্যমন্ত্রীর ছবিকে অপমানের অজুহাতে তালা বিজেপি উপপ্রধানের অফিসে, থানায় এফআইআর – ধুন্ধুমার উত্তরবঙ্গে


এবার উত্তর দিনাজপুরের ইটাহার গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি উপপ্রধানের টেবিলের নিচে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি অপমানজনক ভাবে উদ্ধার হওয়ায় প্রবল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল এলাকায়। আর যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে উঠেছে সেখানকার রাজনীতি।

জানা গেছে, এই গ্রাম পঞ্চায়েতে মহাত্মা গান্ধী, ইন্দিরা গান্ধী ও রাজ্যের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি টাঙ্গানো ছিল। কিন্তু সোমবার অফিস খোলার পরই সেইখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি না দেখতে পেয়ে তৃনমূলের কর্মী-সমর্থকরা বিভিন্ন জায়গায় সেই ছবির খোঁজ করতে গিয়ে হঠাৎই উপ-প্রধানের টেবিলের নিচে সেই দলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি আপত্তিকর অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন তাঁরা।

আর এই ঘটনাই তীব্র উত্তেজনার আকার নেয়। কেন এভাবে তাঁদের দলনেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর ছবি বিজেপির উপ-প্রধানের টেবিলের নিচে অপমানজনক অবস্থায় পাওয়া গেল তা নিয়ে তীব্র বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। জানা যায়, এদিন পঞ্চায়েত অফিসে ঘর বন্ধ করে তালা দিয়ে বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি বিকেলে ইটাহারের চৌরঙ্গী মোড় থেকে একটি ধিক্কার মিছিলও করেন শাসক দলের কর্মী-সমর্থকরা।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে দলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রীর ছবি এভাবে অপমান জনক অবস্থায় পড়ে থাকায় বিজেপির প্রধান, উপপ্রধান এবং উপপ্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করে শাসক দল। এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলে ইটাহার গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরোধী দলনেতা তৃণমূল কংগ্রেসের রহমান আলী বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি উপপ্রধানের টেবিলের নিচে অত্যন্ত অপমানজনক রাখা অবস্থায় আমরা দেখতে পেয়েছি। এই ঘটনায় নিন্দা জানানোর কোনো ভাষা নেই। আমরা চাই প্রশাসন এই ব্যাপারে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করুক।”

একই অভিযোগ করে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে সরব হয়েছেন ইটাহার ব্লক তৃণমূলের সভাপতি অমিত গঙ্গোপাধ্যায়। তবে তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে নিয়েছেন বিজেপির ইটাহার গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান ফিরোজা বেগম ও তাঁর স্বামী নিজামুদ্দিন আহমেদ। এদিন তাঁরা বলেন, “আমরা এই ঘটনার সঙ্গে কোনো ভাবেই জড়িত নই। উপপ্রধান এদিন অফিসেও যাননি। কেউ চক্রান্ত করেই এই কাজ করেছে।”

অন্যদিকে তিন দিন ধরে কেউ অফিসে না যাওয়া সত্ত্বেও চক্রান্ত করে মুখ্যমন্ত্রীর এই ছবিকে উপ-প্রধানের টেবিলের নিচে রেখে বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ইটাহার গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান অশোক বর্মন। পাশাপাশি বিজেপি যে এইরকম সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করে না এবং এই ঘটনায় দোষীদের অবিলম্বে খুঁজে বের করা হোক বলে জানান উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপির সভাপতি শংকর চক্রবর্তী।

তবে বিজেপি নিজেদের দিক থেকে সমস্ত দোষ ঝেড়ে ফেলতে চাইলেও বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগে উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা ইটাহারের তৃণমূল বিধায়ক অমল আচার্য বলেন, “রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ছবি নিয়ে এই ধরনের ঘটনা আমরা ভাবতেই পারছি না। সামান্য সৌজন্যতাবোধটুকুও ওদের নেই। আমরা এই ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাইছি।” সব মিলিয়ে এবার ইটাহার গ্রাম পঞ্চায়েতের অফিসে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি মাটিতে পড়ে থাকায় তীব্র উত্তেজনায় সরগরম উত্তর দিনাজপুর জেলার রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!